বৃষ্টিতে ধুয়ে যায় বেকার প্রেমিকের লজ্জা…

528

বার পঠিত

ছাতা হাতে তরুনীদের খুব সুন্দর লাগে।শাড়ি পরা কোন তরুনী রিকশায় হুড ফেলে বাহারি ছাতা মেলে যাচ্ছে।ঠোটে তার অবচেতন হাসির ছোয়া।চোখ গুলি অকারণে এদিক সেদিক ঘুরছে,চুলগুলি মৃদু হাওয়ায় দুলছে। রাস্তায় বের হলেই আজকাল আতাহারের চোখে কেবল সুন্দরী তরুণীদের মুখ ঘুরাফেরা করে। সকল রূপবতী তরুণীকে তার পরিচিত মনে হয়।

আতাহারের প্রেমিকা আছে।তার এইসব ভাবা উচিৎ না।কিন্তু তবু যে কেন তার এমন হয় সে বুঝে না।একটা হালকা অপরাধবোধ তাকে মাঝে মাঝেই শাসন করে।কিন্তু খুব একটা লাভ হয়না। খুব চিন্তিত মনে আতাহার ফুটপাত ধরে হাটছে।আজ নিতুর জন্মদিন।কথা ছিল জন্মদিন উপলক্ষে বিকেলে শাহাবাগে ফুচকা খাওয়াবে।

মধ্যবিত্ত প্রেমগুলি এমনিতে খুব সরল এবং সুখের মনে হয়।শুধু প্রেমিকার জন্মদিন এবং বিশেষ দিবস গুলিতে প্রেমিকদের কষ্টের যেন শেষ থাকে না।আর যদি এই বিশেষ দিবস অথবা জন্মদিন গুলি মাসের শেষ দিকে হয় তবে তো আর কোন কথাই নেই। ভর দুপুরে রোদে পুড়া দিনটা হঠাৎ করেই কালো মেঘে অন্ধকার হয়ে গেছে।

আকাশের অবস্থা ভালো না।যে কোন সময় বৃষ্টি শুরু হতে পারে।আতাহার মনে মনে প্রার্থনা করছে।বৃষ্টিটা যেন চলে আসে এবং সন্ধ্যা পর্যন্ত যেন থাকে।ফুচকা খাওয়ানোর চিন্তা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে। বাতাসবিহীন বড় বড় বৃষ্টির ফুটা আতাহারের মাথায় ধপ ধপ শব্ধ হচ্ছে।বৃষ্টির বেগ বৃদ্ধি পাচ্ছে।ঘুরে ফিরে আতাহারের মাথায় আবারো সেই ছাতা হাতে তরুণী এসে ভর করেছে।বর্ষাকালে ছাতাওয়ালা একজন প্রেমিকা থাকলে মন্দ হতো না।যখন তখন বৃষ্টি হলেই প্রেমিকাটি ছাতা নিয়ে ছুটে আসবে।কিছুটা আহ্লাদি হয়ে মাথার উপর ছাতা ধরে পাশাপাশি হাটবে।একপাশ দিয়ে শাড়ি ভিজে যাওয়া নিয়ে চিন্তিত হবে না।আমার পাঞ্জাবীটা ভিজে যাচ্ছে কিনা নিতুর নজর সেই দিকে থাকবে।

কেন জানি ভিজতে খুব ভালো লাগছে। এমন ছেলে মানুষের মত বৃষ্টিতে ভিজা হয়না অনেকদিন।কোন এক বিচিত্র কারনে এমন পীচ ঢালা শহুরে রাস্তায়েও আতাহার বৃষ্টি ভেজা মাটির ঘ্রান পাচ্ছে। আতাহার শাহাবাগ চলে এসেছে। মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে।দুই পাশের ড্রেনের নোংরা পানিতে রাস্তা ভরে গেছে।

হঠাৎ মনে হলো নিতুকে জন্মদিন উপলক্ষে কদমফুল দিলে কেমন হয়? সোহরাওয়ার্দি উদ্যানে দুই একটা কদম গাছ থাকার কথা।যেই ভাবা সেই কাজ। আতাহার দ্রুত উদ্যানে ঢুকে পড়লো। কদম গাছ খুজেও পেলো।কিন্তু গাছে ফুল নেই।আতাহারের মন খারাপ হলো।নিতু কদমফুল খুব পছন্দ করে।ভেবেছিলো সন্ধ্যায় নিতুদের বারান্দায় চুপিচুপি ফুলগুলি ফেলে আসবে, কিন্তু হলো না।

বৃষ্টির জোর কমে গেছে। হালকা গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি সাথে ঠান্ডা বাতাসে কেমন শীত শীত লাগছে।এমন দিনে নিতু বের হবে না। যদিও ৪টার সময় নিতুর পাবলিক লাইব্রেরীর সামনে থাকার কথা।তবুও আতাহার উদ্যানের ভিতর দিয়ে হাটতে লাগলো। চারটা বাজতে এখনও ১০ মিনিট বাকি।চারুকলা গেটের সামনে আসতেই দেখে এক ছোট ছেলে কদম বিক্রি করছে। পাচটা কদমফুল কিনে আতাহার লাইব্রেইরির দিকে হাটা শুরু করলো।লাইব্রেরীতে ঢুকে ছোট কাজটা (!) সেরে বাংলা মটরের বাস ধরতে হবে। rx drugs online pharmacy

সর্বদা যে মেয়ে জিনস ফতুয়ায় অভ্যস্ত সে আজকে শাড়ি পরেছে। কপালে বিশাল সাইজের গোল লাল টিপ।ছাতা মাথায় দাঁড়িয়ে আছে।দূর থেকে আতাহারের যেন বিশ্বাস হচ্ছে না।আর একটু এগিয়ে গিয়ে যখন নিশ্চিত হয় এ নিতু ছাড়া আর কেউ নয় তখন বুকের ভিতর ধুক করে উঠে।

এভাবে ভেগাবন্ডের মত ভিজতেছো কেন, তুমি কি ভুলে গেছো বৃষ্টিতে ভিজলে তোমার টনসিল ফুলে যায়?এসো ছাতার তলে এসো,আমার খুব কাছে এসো না হয় আবার ভিজে যাবে। আতাহারের হাতে কদমফুল।নিতু হঠাৎ দেখতে পেয়ে মিথ্যে রাগ দেখানো ভুলে গিয়ে হেসে উঠে।সেই ভুবন ভুলানো খিলখিল হাসি।

পাবলিক লাইব্রেরীর ওয়াশরুম থেকে আতাহার ফ্রেশ হয়ে বেরিয়ে দেখে বৃষ্টি থেমে গেছে। নিতু হঠাৎ বলে চল ফুচকা খাবো।গেটের সামনেই একটা ফুচকার দোকান।আতাহার নিতুর জন্য একটা ফুচকার অর্ডার দেয়।নিতু একা খাবে না। তাই সে আরও একটা ফুচকার কথা বলে।আতাহারের মানিব্যাগ খালি।তবে পাঞ্জাবীর পকেটে একটা ভেজা বিশ টাকার নোট।আতাহার ভাবছে, নিতু যদি একবার ভদ্রতা করে বিলটা দিতে চাইতো। cuanto dura la regla despues de un aborto con cytotec

আতাহার ভীষণ লজ্জিত।ফুচকার বিল দিতে পারেনি বলে নয়।ফুচকার বিল কিভাবে দিবে সেই টেনশনে প্রথম দেখাতেই নিতুকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে ভুলে গেছে।

You may also like...

  1. তারিক লিংকন বলছেনঃ

    ভালোবাসার তীব্র অনুভূতিগুলোকে কি সহজেই না প্রকাশ করলেন। ভাল লাগলো…

    “কেন জানি ভিজতে খুব ভালো লাগছে। এমন ছেলে মানুষের মত বৃষ্টিতে ভিজা হয়না অনেকদিন।কোন এক বিচিত্র কারনে এমন পীচ ঢালা শহুরে রাস্তায়েও আতাহার বৃষ্টি ভেজা মাটির ঘ্রান পাচ্ছে। আতাহার শাহাবাগ চলে এসেছে। মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে।দুই পাশের ড্রেনের নোংরা পানিতে রাস্তা ভরে গেছে।”— দারুণ সিম্বোলিক!! :-bd :-bd :-bd diflucan one time dose yeast infection

  2. সহজ সরল কিন্তু ভীষণ গভীর জীবন দর্শণ!
    :-bd :-bd :-bd

  3. অংকুর বলছেনঃ

    ব্যাচেলর লাইফের খাটি কথা বলেছেন আপু , :)) :)) =D> =D> তার সাথে ভালোবাসার সেই চমতকার অনুভুতিটা । সব মিলিয়ে অস্থির :-bd :-bd :-bd :-bd

  4. দুরন্ত জয় বলছেনঃ

    গল্প ভাল লেগেছে। আজ আমাকে সেই পরিস্থিতিতে পরতে হত। বেঁচে গেলাম।

  5. স্পীকার বলছেনঃ

    অনেক পছন্দ হয়েছে ভাই । লেখার হাত খুবই ভাল :-bd :-bd :-bd :-bd :-bd :-bd

  6. অংকুর বলছেনঃ

    অনেকদিন পএ আবার পড়লাম,অনেক ভালো লাগল

প্রতিমন্তব্যশ্রাবনের রক্তজবা বাতিল

আপনার ই-মেইল ও নাম দিয়ে মন্তব্য করুন *

Question   Razz  Sad   Evil  Exclaim  Smile  Redface  Biggrin  Surprised  Eek   Confused   Cool  LOL   Mad   Twisted  Rolleyes   Wink  Idea  Arrow  Neutral  Cry   Mr. Green

get viagra now

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Heads up! You are attempting to upload an invalid image. If saved, this image will not display with your comment.

clomid trying to get pregnant
buy viagra blue pill