Category: বিজ্ঞান

সায়েন্স ফিকশন – একদিন সত্যের ভোর…।

কম্পিউটার স্ক্রীনটার দিকে অবাক চোখে চেয়ে আছে অনামিকা। বাংলাদেশ নামক সবুজ একটা দেশের রাজধানী ঢাকার ভিকারুন্নিসা নূন স্কুলে পড়ে সে। এবার দশম শ্রেণীতে উঠল। স্বপ্ন সাংবাদিকতায় পেশা গড়ার। অনেক বড় হবে সে। প্রতিদিন স্কুল থেকে ফিরে একবার ল্যাপটপটা খুলে না বসলে অনামিকার শান্তি হয়না। প্রতিদিনের পড়াশুনার খুঁটিনাটি বিষয় যেমন সে দেখতে ভালোবাসে ইন্টারনেটে, তেমনি ফেসবুকে কাজ করতেও মন্দ লাগে না। আর ফেসবুক কি আজ আর সেই ফেসবুক আছে? শুধু আড্ডা দেয়াই নয়। অনামিকার বয়সী ছেলেমেয়েরা ফেসবুক দিয়ে এখন দেশ পাল্টে দিতে পারে। মূমুর্ষ রোগীর রক্ত যোগাড় করা থেকে শুরু করে রাজাকারবিরোধী আন্দোলন – সবই তো হয় আজকে ফেসবুকের নীল দুনিয়ায়।...

মতিকথন

মাইরি বলচি দাদা , মতি একখান চিজ আছে । বছর দুই আগে একবার মতির লগে আড্ডা দিতাচি শুক্রাবাদের এক চিপায় । খেয়াল কৈরা দেখলাম একটু পর পর মতি বিচি চুল্কাইতেছে । শুধিলাম , কাহিনী কি মতি , বিচির মধ্যে কি খোসপাচড়া হৈয়াছে ? মতি বিরস বদনে জবাব দিলো , সোনো কিরিম মনে কৈরা বিচিতে শক্তি দৈ লাগাইচিলুম বছর কয়েক আগে । শক্তির এমনই শক্তি , বিচি ফুলিয়া ঢোল হৈয়া গেছিলো । প্রতি আমাবস্যার রাতে বিচির গিটে গিটে বিষ উঠে । তখন চুলকাইতে চুলকাইতে খিচুনি উইডা যায় । শইলডা জ্বলে । প্রলাপ বিলাপও করি শুনছি । শুনিয়া বড় আগ্রহ বোধ হইলো...

আত্মকামী ও জীবনদর্শন…

জন্ম থেকেই আমি পরীক্ষার্থী। ব্যাধি, শিশুমনে অবান্তর ভাবনা, আরেকটু বড় হওয়ার পর আরেকটু বড়সড় সংকট, যৌবনে সম্পর্কের টানাপোড়েন আরো শত শত পরিক্ষার ভেতর দিয়ে আমাকে যেতে হয়েছে। আর কিছু হোক না হোক প্রচন্ড আত্মপ্রেমী হয়ে বেড়ে উঠেছি আমি, নিজের পাশে নিজেই দাঁড়িয়েছি সুখে দুঃখে সবসময়। এভাবে আত্মকাম আত্মপ্রেমে মগ্ন হয়ে একটা সময় আবিষ্কার করেছিলাম অন্যের প্রতি আমার কোন আবেগ নেই, স্বার্থপর আর অহংকারী হিসেবে পরিচিতি পেয়েছিলাম। তারপর জানিনা কিভাবে যেনো ভালোবাসতে শিখে গেলাম, প্রতিটা মানুষের জন্য ভালোবাসা। মিশে গেলাম। একে একে অনেক কিছুই জীবনে এলো, প্রেম, প্রেরনা, যৌনতা। অন্য একটি শরীর ছুঁয়ে ফিরে এসে আয়নার সামনে দাঁড়ানো মানুষটাকে বলেছি, এই...

viagra vs viagra plus

দৈনন্দিন কর্মকান্ডে বিজ্ঞান (পর্ব ১)

দৈনন্দিন জীবনে বিজ্ঞানের প্রয়োজনীয়তা আমাদের সবারই জানা আছে। বইতে প্রতিনিয়তই পরি, আর অবনত মস্তকে স্বীকার করে নিই, বিজ্ঞান আমাদের এসব দিয়েছে, বিজ্ঞান ঐসব দিয়েছে! বস্তুত, বিজ্ঞান একটি উন্মুক্ত জ্ঞান। আমরা যে কেউই চিন্তা করতে বের করতে পারি বিভিন্ন কম্বিনেশান। বেসিক জ্ঞান কাজে লাগিয়ে আমরা কিছু বানাতে না পারি, অন্তত কিছু থিয়োরি সহজেই দিতে পারি! অনুরূপ কথা গণিতের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য! জাস্ট কিছু ক্রিয়েটিভিটি কাজে লাগাতে পারি যেকোনো সময়। আজ তেমনই কিছু আলোচনা থাকছে। স্বয়ংক্রিয় চার্জারঃ যদি বলি, আমি এমন একটা যন্ত্র বানাবো যেটা বিদ্যুৎ ছাড়াই আজীবন নিজে নিজে চার্জ হবে। ভাবছেনয সৌর শক্তি? না! তাহলে ভাবছেন, জেনারেটর? না! আমার তেল কিনার টাকা...

can levitra and viagra be taken together

জর্জ অরওয়েল

Who controls the past controls the future, who controls the present controls the past.’-George Orwell ‘1984’ (1949) জর্জ অরওয়েল ছিলেন একজন বৃটিশ সাংবাদিক এবং লেখক যিনি বিংশ শতাব্দীর দুইটি বিখ্যাত বই “এনিম্যাল ফার্ম ” এবং ” নাইন্টিন এইট্টিফোর ” এর জন্য বিখ্যাত। ২০০৮ সালে টাইমস সাময়িকীর শ্রেষ্ঠ ৫০ জন লেখকের তালিকায় দ্বিতীয় স্থান লাভ করেন। কালোত্তীর্ণ ইংরেজ সাহিত্যিক জর্জ অরওয়েল ১৯০৩ সালের ২৫ জুন বিহারের মতিহারে জন্মগ্রহণ করেন। জর্জ অরওয়েল মূল নাম এরিক আর্থার ব্লেয়ার। অরওয়েলের বাবা রিচার্ড ওয়ামেসলি ব্লেয়ার ইন্ডিয়ান সিভিল সার্ভিসের আফিম বিভাগে কর্মরত ছিলেন। ১৯০৪ সালে অরওয়েল মায়ের সঙ্গে ইংল্যান্ডের হেনলি অন টেমসে চলে আসেন। অতঃপর ১৯১২... wirkung viagra oder cialis

Middle East Respiratory Syndrome (MERS)

Middle East Respiratory Syndrome (MERS) হচ্ছে মূলত একটি শ্বাসকষ্টজনিত রোগ।  এটা সর্বপ্রথম সৌদিআরব এ ধরা পরে। এটি   MERS-CoV নামের একটি coronavirus এর আক্রমনে হয়ে থাকে। এটি একটি ছোঁয়াচে র যেসব মানুষ MERS এ আক্রান্ত বলে নিশ্চিত হয়েছেন তারা সবাই শ্বাসকস্টজনিত সমস্যায় ভুগেছেন। যেমন জ্বর, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্ট। অধিকাংশ রোগীর নিউমোনিয়া হয়ে থাকে। কারো কারো ক্ষেত্রে কিডনি ফেইলর। নিশ্চিতভাবে MERS-CoV ইনফেকশন আছে এমন মানুষের ৩০% এ পর্যন্ত মারা গেছেন। যেসব মানুষের MERS-CoV Infection সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া উচিতঃ ১। জ্বর (  ≥ 38°C , 100.4°F ) ২। নিউমোনিয়া অথবা শ্বাসকস্ট ৩। যারা আরব রাষ্ট্রগুলোর সম্প্রতি ভ্রমণ করে এসেছেন ৪। আরব রাষ্ট্রগুলোর...

about cialis tablets

পরিবেশ ও সভ্যতা

পোড়া মাটির অবিরাম বেড়ে উঠা আর ক্রমাগত বৃক্ষ নিধন সভ্যতার নামে আর কত- নগ্ন আস্ফালন? বিশ্ব আজ অবিরত ছুটছে- করে অফুরন্ত জলরাশির বিনাশ সভ্যতার নামে আর কত- মেকী উল্লাস? হঠকারী অবকাশ নিরন্তর করে পাহাড় আর তৃণভূমির অবসান সভ্যতা আজ কোথায়? সভ্যদের মেকী অহমিকায়? রাইট-রা সব নভোমণ্ডল জয়ে মত্ত আগ্রাসী প্রযুক্তির ধুঁয়ায় আর আণবিকে সভ্যতার নামে আর কত- স্বর্গীয় নীল আকাশ হবে ফিকে? অনিঃশেষ বিচ্ছিনতায় আর ধারাবাহিক একাকীত্বে সভ্যতা নামে আর কত- হতাশা মনুষ্যত্বে? পরিবেশ পরিবেশ স্বেচ্ছাচারী সমাবেশ বৃক্ষ-জলরাশি-পাহাড় নীল আকাশ নত জগদীশের প্রিয় প্রাণের তৃণরাজি মানুষেই আহত। সভ্যতা, টেকসই অর্থনীতি আর বেগবান বিজ্ঞান-প্রযুক্তি সূচক ঊর্ধ্বগামী? অতঃপর পরিবেশ নিঃস্ব; প্রাণীকূল তৃণমূল...

achat viagra cialis france

ময়দা নিয়ে কিছু বিখ্যাত মনিষীর থেউরি।

বিশেষ সেই সূত্রগুলো নিম্নে দেয়া হলঃ  \m/ ১.নিউটন, “ময়দা সুন্দরীর সৌন্দর্য তার মুখে মাখায়িত ময়দার সামানুপাতে পরিবর্তিত হয়।” ২.পিথাগোরাস, “ময়দা সুন্দরীর দুই গালে মাখায়িত ময়দার ওজনের বর্গফল একটি বৃহত্তর ময়দার বস্তার ওজনের বর্গফলের সমান।” ৩.রামফোর্ড, “ময়দা হচ্ছে ময়দা সুন্দরীর বাহ্যিক অবস্থা যা ঐ সুন্দরীর প্রতি কোন সচেতন ছেলের আগ্রহ ব্যাস্তানুপাতে এবং অচেতন ছেলের আগ্রহ সামানুপাতে পরিবর্তন করে।” ৪.হাইগেন, “ময়দা এমন একটি পদার্থ যা ময়দা সুন্দরীর সৌন্দর্যের জন্য অপরিহার্য এবং যার স্থিতিস্থাপকতা কম কিন্তু ঘনত্ব খুবই বেশী।” ৫.ফ্যারাডে, “ময়দা বিশ্লেষনের মাধ্যমে কোন কালো চামড়ার উপর ময়দার প্রলেপ সৃষ্টি করাকে ময়দাপ্লেটিং বলে। “

বিয়ে সম্পর্কে এই উক্তিগুলো করেছেন বিখ্যাত মানুষেরা…..–পর্ব ১

\m/ বিয়ে সম্পর্কে এই উক্তিগুলো করেছেন বিখ্যাত মানুষেরা।  >:)    :-bd   তাদের নাম এখানে উল্লেখ করা হল না এই কারণে যে এগুলো আসলে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষেরই মনের কথা,প্রাণের কথা। আর এই কথা গুলোকেই আমরা বাণী চিরন্তনী বলে আখ্যায়িত করেছি। বাণীসমূহঃ ১-বিয়েঃ একটি বৈধ ও ধর্মসম্মত অনুষ্ঠান যেখানে দুজন বিপরীত (সাধারণত) লিঙ্গের মানুষ পরস্পরকে জ্বালাতন করা এবং পরস্পরের ওপর গুপ্তচরবৃত্তি করার শপথ নেয় ততদিনের জন্য যতদিন না মৃত্যু এসে তাদেরকে আলাদা করে। ২-সন্ধ্যায় ঘরে ফিরে একটু ভালোবাসা,একটু আদর,একটু কোমলতা পাওয়া – একে এক কথায় কি বলে বলতে পারেন? একে বলে আপনি ভুল বাসায় এসেছেন। ৩-আমি বহুদিন আমার স্ত্রীর সাথে...

জন্ম

তোমার কাছে চেয়ে নেয়া চুম্বন গুলো শুকিয়ে গেছে । হাড় বের হয়েছে  গত জন্মের  ছোঁয়া ।   তোমার কাছে ছুটে যাওয়া প্রতিটি পথ এখন  কর্পূর । মিহি  স্বচ্ছ দানার চিনির স্বাদ ভুলে গেছি ,  তোমার হাসি আজ কচলানো লেবু পাতা । কেবল ভুলতে পারছি না এই জন্মের অভিমান । আহা প্রেম , আহা সময় । ক্যান এতো বিপ্রতীপ কোণে তোমাদের বসবাস ?  আমি তো পাগল হতে চাইনি ।  হতে চেয়েছিলাম  সিন্দুকের পাহারাদার ।  কোষে কোষ লেগে দ্বিপ্রহরে চিৎকার । মেয়ে তুমি  আরও একবার ভুবনডাঙ্গার   ষোড়শী হয়ে যাও ।   কসম ,   আগামী  জন্মের ।   ——- শুরু থেকেই সভ্যতাকে দেখে আসচ্ছি...

যদি কেউ কথা না কয়. . .

আমার কেন মানবতাবাদী হতেই হবে ? প্রথমেই ধরে নেই আমি একজন প্রচলিত ধর্মে অবিশ্বাসী মানুষ। নাস্তিক। ঈশ্বরের অস্তিত্বকে অস্বীকার করি। আমার বেঁচে থাকতে, টিকে থাকতে, আমার অস্তিত্ব রক্ষার্থে কোনো কল্পিত ঈশ্বরের আমার প্রয়োজন নেই। এখন অধিকাংশ অবিশ্বাসীর ক্ষেত্রে যা হয়, ধর্মের কল্পিত ঐশ্বরিক অংশকে বাতিল করে দিয়ে বরং নৈতিক দিকগুলো ধারন করেন। যদিও ধর্মীয় নৈতিক শিক্ষাগুলো ধর্ম থেকে আসে না, আসে মানুষের পারিপার্শ্বিক সামাজিক ও পারিবারিক মূল্যবোধ থেকে। আমার ব্যক্তিগত অবস্থান থেকে তাই প্রশ্ন; আমার কেন নীতিবান হতেই হবে? আমার কেন মানবতাবাদী হতেই হবে? আমার কেন মানবিক গুণাবলী সম্পন্ন হতেই হবে ? ব্যাপারটার বিস্তারিত আলোচনার পূর্বে তাই কিছু সংশ্লিষ্ট আলোচনার...

দাও ফিরে সে অরণ্য, লও এ নগর!

দাও ফিরে সে অরণ্য, লও এ নগর, লও যত লৌহ লোষ্ট্র কাষ্ঠ ও প্রস্তর হে নবসভ্যতা! হে নিষ্ঠুর সর্বগ্রাসী, দাও সেই তপোবন পুণ্যচ্ছায়ারাশি, গ্লানিহীন দিনগুলি, সেই সন্ধ্যাস্নান, সেই গোচারণ, সেই শান্ত সামগান, নীবারধান্যের মুষ্টি, বল্কলবসন, মগ্ন হয়ে আত্মমাঝে নিত্য আলোচন মহাতত্ত্বগুলি। পাষাণ পিঞ্জরে তব নাহি চাহি নিরাপদে রাজভোগ নব– চাই স্বাধীনতা, চাই পক্ষের বিস্তার, বক্ষে ফিরে পেতে চাই শক্তি আপনার, পরানে স্পর্শিতে চাই ছিঁড়িয়া বন্ধন অনন্ত এ জগতের হৃদয়স্পন্দন। ১৯ চৈত্র, ১৩০২ রবী ঠাকুরের এই কবিতার সাথে সবাই ই কম বেশি পরিচিত। পুরো কবিতা যদি আমরা কেউ কেউ নাও জেনে থাকি তবুও মাধ্যমিকে পড়েছেন আর কবিতার প্রথম লাইনটি দেখেননি বা...

আমি কিংবদন্তীর কথা বলছি; আমি রিচার্ড ফাইনম্যানের কথা বলছি…

পৃথিবীর ইতিহাসে যুগে যুগে আবির্ভূত হয়েছেন অনেক জ্ঞান তাপস। তাঁরা মেধাশক্তির ছড়ি ঘুরিয়ে পৃথিবীর সভ্যতার বিচ্ছুরন ঘটিয়েছেন সারা মহাবিশ্বে। তাঁদের অক্লান্ত পরিশ্রমেই মানুষ আজ হয়ে উঠেছে এই মহাবিশ্বের সবচেয়ে আলোচিতএবং স্বঘোষিত সম্রাট। যুগে যুগে মানুষের এই সাহসের সঞ্চরন ঘটিয়েছেন মহামনীষীরা। তাঁদের মাঝেই একজন স্যার রিচার্ড ফাইনম্যান। বিংশ শতাব্দীর পদার্থবিজ্ঞানের অন্যতম পুরোধা, আইনস্টাইনের যোগ্য উত্তরসূরি এবংনিঃসন্দেহে এক মহামানব। নানারূপ কুসংস্কারকে পাশ কাটিয়ে যারা শৈশব থেকেই নিজেকে গড়ে তুলেছেন আধুনিক বিজ্ঞানের প্রতিভারূপে তাঁদের মাঝে রিচার্ড ফাইনম্যানের নাম চলে আসে সর্বাগ্রে। পান্ডুলিপির শুরুতেই আমি আমার আলোচ্য বিষয়গুলো বর্ণনার প্রয়োজনে প্রারম্ভিকার শ্রাদ্ধ করছি এখানেই। আজ স্যার রিচার্ড ফাইনম্যানের জন্মদিনঃ১৯১৮সালের ১১ মে নিউ ইয়র্কে জন্মগ্রহণ...

private dermatologist london accutane

আপনার কোম্পানির একটি ওয়েব সাইট থাকা কতটা গুরুত্বপূর্ণ (১ম পর্ব )

এটা সভ্যতায় আমার প্রথম পোস্ট, যদিও আমি অতটা লেখালেখি করি না (পারিও না বলতে পারেন ) তবে যতটুকই লিখবো তার সবগুলোই থাকবে “ইন্টারনেট ফর এভ্রিডে লাইফ” নিয়ে কারন এই ফিল্ড টা তে লিখতেই আমি সাচ্ছন্দ্যবোধ করবো আর আমার দ্বারা কখনো কবিতা, গল্প, গান লিখা সম্ভবপর হবে না । বানানে ভুল-ত্রুটি হলে ধরিয়ে দিতে দ্বিধাবোধ করবেন না, আচ্ছা তো শুরু করা যাক … ধরুন , রহিম সাহেবের বিশাল জামদানি কাপড় ব্যাবসায়ি , তার দোকানে সব ধরনের ঐতিহ্যবাহি কাপড়ের সম্ভার , তার কোম্পনির কোন ওয়েবসাইট নেই ,অন্যদিকে করিম সাহেব একজন ছোটখাটো কাপড়ের ব্যাবসায়ী, কিন্তু তার কোম্পানির ওয়েবসাইট আছে ,একদিন আমেরিকা থেকে ইগল ফ্যাশন...

ইসলামের পবিত্র বাণী ভার্সাস উল্কাপতন, বজ্রপাত ইত্যাদি প্রসঙ্গ

কোরান : বজ্রপাত-উল্কাপতন সম্পর্কে কি বলে ? নিশ্চয় আমি পৃথিবীর আসমানকে সুসজ্জিত করেছি নক্ষত্রমালার সুষমা দিয়ে এবং সংরক্ষিত করেছি প্রত্যেক অবাধ্য শয়তান থেকে। ফলে শয়তানের দল উর্ধ্বজগতের কোন কিছু শুনতে পারে না এবং তাদের প্রতি সব দিক থেকে উল্কা নিক্ষেপ করা হয় কিন্তু কোন শয়তান হঠাত্‍ কিছু শুনে ফেললে, এক জ্বলন্ত উল্কাপিণ্ড তার পদানুসরণ করে (কোরান ৩৭:৬,৭,৮,১০); বজ্রপাত ঘটার উদ্দেশ্য মানুষকে ভয় দেখানো বা কাউকে আঘাত করা (কোরান ১৩:১২-১৩); আমি সর্বনিম্ন আকাশকে প্রদীপমালা দ্বারা সাজিয়েছি; সেগুলোকে শয়তানদের জন্য ক্ষেপণাস্ত্র করেছি এবং প্রস্তুত করে রেখেছি তাদের জন্য জ্বলন্ত অগ্নির শাস্তি (কোরান ৬৭:৫); তুমি কি জানো সহসা আঘাতকারী বস্তুটি কি? এটা একটা... accutane prices

মেল-ফিমেল জোড়া [Pair] আর যৌনতা ছাড়া শিশু জন্ম : ধর্মীয় বিশ্বাসের প্রতি মারাত্মক চ্যালেঞ্জ

প্রচলতি সকল ধর্মগুলোই দৃঢ়তার সাথে বলে যে, জোড়ায় জোড়ায় সৃষ্টি ও যৌনতা ছাড়া প্রাণির নতুন জন্ম অসম্ভব (কেবল ধর্মীয়ভাবে সম্ভব যেমন যিশু!) কিন্তু বিজ্ঞান যতই এগুচ্ছে, ততই তারা সপ্তপদি প্রাণির সন্ধান পাচ্ছে, যারা সন্তান উৎপাদনে পুরুষের সহযোগিতা নেয়না কিংবা নিজেরা সেক্স পরিবর্তন করে, যার কয়েকটি উদাহরণ নিম্নরূপ। ক্লোনিং এর মাধ্যমে নতুন শিশুর জন্ম কথা আমরা সবাই কমবেশি জানি, যেখাবে মা-বাবা দরকার নেই। তা ছাড়া একই ধরণের ‘প্রাকৃতিক ক্লোনিং’ এর মাধ্যমে অনেক প্রাণির দেহের অভ্যন্তরে নিষেক ঘটতে পারে। কোন রকম শুক্রানুর সংযোগ ছাড়াই দেহের “ডিপ্লয়েড ডিম্বানুর নিষেক” ঘটাতে পারে অনেক প্রাণিই। জীববিজ্ঞানে এর নাম ‘পার্থেনোজেনেসিস’ (Parthenogenesis)। কাজেই পার্থেনোজেনেসিস নামধারি ‘কামহীন প্রাণিরা”...

শিরোনামহীন কিছু অগোছালো ব্যাখ্যা!!- প্রথম অনুচ্ছেদ

দেশান্তরী হওয়ার পর দেখতে দেখতে প্রায় ৩ টা বছর পার করে দিলাম। খুব উত্তেজনা নিয়ে ইতালি পাড়ি জমিয়েছিলাম। ভাল ভাল ইউনিভার্সিটির  বড় ডিগ্রি নিব,  বড় কোম্পানিতে চাকরী করবো, হাজার হাজার ইউরো ডলার উপার্জন করব, মনের মানুষটিকে একদিন বিয়ে করে ঘর সংসারী হয়ে যাব। এক কথায় সিম্পেল লাইফ প্লান। কিন্তু আসলে সবার পেটে সব কিছু সহ্য হয় না, তেমনি সবার জন্য বিদেশের জীবন যাপন নয়। কেননা আজ দুই বছরে আমার আসে পাসের এতো বন্ধু বান্ধব, মামা, চাচা, ভাই বোন এর ভিতর একজন বাদে অন্য কাউকে পাইনি যে বা যারা আমাকে একটি বারের জন্য হলেও বলেছে যে পড়াশুনা শেষ করে দেশে কিছু... acne doxycycline dosage

cialis new c 100
para que sirve el amoxil pediatrico

বিশ্বের দামী রত্নসমূহ

বিশ্বে বিভিন্ন সম​য়ে বিভিন্ন রত্ন সম্পর্কে কথা উঠতে দেখা যায়। সভ্যতার বিভিন্ন পর্যায়ে বিভিন্ন রত্ন তার স্বাক্ষর রেখে গেছে। সম​য়ে সম​য়ে রত্নগুলো ইতিহাসকে পরিবর্তন করেছে। রাশিয়ার জারদের যেমন ১৯০৫ এর পর লাল পাথর পাগল করে তুলত, বিদ্রোহের ভ​য়ে, পান্না যেমন মানুষের পুজার সামগ্রী হ​য়ে থেকেছে, হীরা হ​য়েছে ঐতিহাসিক লুটের সামগ্রী। তাই রত্নের বিষ​য়ে কৌতুহল স্বাভাবিক। এখানে বিভিন্ন রত্নের প্রাপ্যতা ও তার মুল্যের অঙ্ক দেয়া হল​।   জেরেমিজেভাইট বা ইয়েরেমিয়েভাইট আবিষ্কৃত হ​য়েছিল রাশিয়ান ভুতাত্ত্বিক ইয়েরেমিয়েভ এর হাতে,১৮৮৩ সালে। এটি এক ধরনের ক্রিস্টাল, বেশ দুর্লভ ও। মাত্র ক​য়েক হাজার টুকরা আজ পর্যন্ত আবিষ্কৃত হ​য়েছে। তবে এর হালকা নীল রঙের ক্রিস্তালগুলোর দামই বিশ্ববাজারে...

ক্যামেরার ইতিবৃত্ত – পর্ব ১

কোন জিনিস নিয়ে কাজ করার পূর্বে আমাদের সেই জিনিসটা সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নেওয়া উচিত । আজকাল অনেকেই ক্যামেরা কিনছেন । কেউ শখের বশে , আবার কেউ পেশার জন্য । তো কী ক্যামেরা কিনবেন , কিভাবে কিনবেন , আপনি যেই কাজের জন্য ক্যামেরা কিনছেন তার জন্য কোন ক্যামেরাটা ভালো তা জেনে নেয়া যাক । প্রথমে SENSOR নিয়ে বলি । সেন্সর হলো একটা ইলেকট্রনিক ডিভাইস যেটা অপটিক্যাল সিগন্যালকে ইলেকট্রনিক সিগন্যালে পরিণত করে ।  আমরা যদি ফিল্ম ক্যামেরার দিনগুলোতে ফিরে যাই তাহলে দেখতে পাব মোটামুটি একটা স্ট্যান্ডার্ড SLR ক্যামেরার ফিল্মের একটাই সাইজ ছিল : 24mmX36mm . কেউ অন্য কিছুর কথা চিন্তা করেনি ।...

side effects of drinking alcohol on accutane