Author: ট্যাটন

শিক্ষাফল

কলম যখন লিখতে চালায়, জ্বালায় জ্ঞানের আলো অর্জন আর বর্জনে সব মিশছে সাদাকালো। শিখছি কি যে, শেখাই কি তা, সাদার মাঝে সাদা জ্ঞানের খোঁজে ভ্রমন মাঝে সবই যেন কাঁদা। শিক্ষা জ্ঞানের আধাঁর ঘরে, পাশের ঘরে বাতি বর দিয়েছেন মুক্ত হস্তে স্বয়ং স্বরসতী।   পুস্তকের ঐ তত্ত্ব জ্ঞানে বদ্ধ বিচরণ, পূর্ণ বিনে অংশটুকুন করিলে বরণ। ধর্ম যুক্ত শিক্ষা সদা রহে উপযোগ, অর্জনে নয় ধার্মিক বিনে সাধু প্রয়োগ। বিদ্যাগৃহে জীবে দয়া মহত্‍ জ্ঞানের পাহাড়, বিশ্বগৃহে দয়ার তলে চাপা প্রাণের আহার। অর্জন শেষে বিদ্যাগৃহে লাগিলো মস্ত তালা, তবুও হঠাত্‍ থামিয়া থামিয়া কর্মে বাঁধায় জ্বালা। জ্বালার চালে লিপ্সার জোয়ার ঢালিছে শীতল জল, দোষ কী...

ফিরে আসা

আমার মৃত্যু সে কবেই হলো তুমি জানোনি, হেরেছি পৃথিবীর কাছে, জানিনি নিজেও আমার আমি ঠিক কবে হারিয়ে গেছে। নিশাচর যখন দিনের আলোয় নিজেকে খুঁজে ফেরে, স্তব্ধতা কোলাহলের কাছে প্রতিবার হেরে, হারায় পদচিহ্ন এই পৃথিবী মোরে করেছে ধন্য। যদি আর কিছু পথ হেটে যাওয়া হোত আমাতে, তটিনীর প্রাণ আসতো কি মোরে মাড়াতে, হয়ে ভাঙ্গন খুব বেশি কি এসে যায় নিয়মে লঙ্ঘন। আমার মৃত্যু তোমা নবপ্রাণ স্বাধীন সত্বায় মিশে, পৃথিবী আবার হারাবে তোমায় নতুন আমারি খোঁজে। সেদিনও তুমি পাবে আমাতে তোমারি পদচিহ্ন, হে ধরণী জগতো ধাত্রী করেছ মোরে ধন্য।

metformin gliclazide sitagliptin
buy kamagra oral jelly paypal uk
capital coast resort and spa hotel cipro
accutane prices
puedo quedar embarazada despues de un aborto con cytotec
clomid over the counter