“WHAT A WONDERFUL WORLD!!”

947

বার পঠিত

সূর্য মামা উকি দেয়ার আগেই ট্রেন এ চেপে বসলাম। গন্তব্য ইতালির চিঙ্কুয়ে ট্যাঁররের করনেলিয়া বিচ। জানালার সাইডের সিটে বসে ইতালির কান্ট্রিসাইড উপভোগ করছিলাম। রাতে না ঘুমানোর কারণে হালকা ঝিমুনি পাচ্ছিল। কিন্তু প্রকৃতির সেই অপুরুপ শোভা আমাকে ঘুমানোর অনুমতি দিল না। এদিকে ট্রেন চলছে ১৩০ থেকে ১৫০। হয়তবা তার থেকেও বেশী। আর অপরদিকে পূর্ব দিগন্তে সূর্য ও মেঘ ব্যস্ত যার যার আদিপত্ত বিস্তারে। কেন জানি আমি মুগ্ধ হয়ে গেলাম তাদের এই অদ্ভুত খেলা দেখে। একদিকে মেঘ ও সূর্যের আদিপত্ত বিস্তারের খেলা, সাথে ট্রেন ইতালিয়ার দ্রুত ছুটে চলা আর কানে আইপডে বাজছে লুইস আর্মস্ট্রঙের “WHAT A WONDERFUL WORLD”। সবকিছু মিলিয়ে মুহূর্তে প্রকৃতির এক অদ্ভুত মায়াজালে আবিষ্ট হয়ে গেলাম।

অনুধাবন করলাম মেঘের বিশালতা। সকল শক্তির আধার সূর্যকে খুব অসহায় মনে হচ্ছিল ধূসর সে মেঘের কাছে। সীমাহীন আকাশে মেঘ ও সূর্যের লুকোচুরি আর বিশাল এই পৃথিবীর বুক চিরে দ্রুতগতিতে ছুটে চলা ট্রেনের ছোট জানালায় দুটি প্রতিক্ষিত চোখ, অপলক দৃষ্টিতে প্রতিক্ষায় আছে সূর্যের বিজয়ের।

এইভাবে অনেকটা সময় পার হয়ে গেল। একসময় “আস্তি” নামক এক ষ্টেশনে থামল আমাদের ট্রেনটি। ৫ মিনিট বিরতি এইখানে। আমি তখনও জানিনা কি চমক অপেক্ষা করছে আমার জন্য। আস্তে আস্তে ট্রেন চলা শুরু করলো।

আমি বাইরে তাকালাম পাহাড়ে ঘেরা আস্তি শহরটি দেখার জন্য। শহরটাও ছিল এককথায় অসাধারণ। পাহাড়ের বুক চিরে গজিয়ে ওঠা নানান রঙের অসংখ্য ডুপ্লেক্স টাইপের ঘর দেখে বিমহিত হয়ে গেলাম। এদিকে আমাদের ট্রেনটিও পাহাড়ের কোল ঘেসে উপর দিকে উঠছে। হটাৎ যেটা দেখলাম তার জন্য আমি প্রস্তুত ছিলামনা।

অনুভুব করলাম অদ্ভুত এক ভালোলাগার আকর্ষণে আমার শরীর অবস হয়ে যাচ্ছে, আমার দু-নয়ন স্থির হোল প্রকৃতির সে এক অদ্ভুত মাদকতায়, মনের ভিতর জেগে উঠল এক বিস্ময়কর অনুভূতি। অপলক দৃষ্টিতে চেয়ে আছি দূরের পর্বত শৃঙ্গের দিকে।

পর্বতের চূড়ায় ধূসর সেই মেঘ আরও বেশী ঘনীভূত হয়ে কালো বর্ণ ধারন করেছে। এদিকে অদম্য সেই সূর্যের আলো সঙ্গী হিসেবে পেয়েছে বাতাসকে। মনে হোল দুজনের নিরলশ চেষ্টায় ঠিক পর্বতের চূড়ায় হার না মানা কালো মেঘ কুণ্ডলী পাকিয়ে এক বৃত্তাকার কৃষ্ণগহব্বরের সৃষ্টি করেছে, যে গহব্বরটি ছিল কেবলই সূর্যের জন্য। যে গহব্বর দিয়ে সূর্যের কুসুম বর্ণের আলো ধীরে ধীরে আবিষ্ট করছে দৃঢ়মান সেই পর্বতশৃঙ্গকে!!

যদিও প্রকৃতির সেই সৌন্দর্য ভাষায় বর্ণনা করার মত দৃষ্টতা আমার হয় না। তারপরও  অনবদ্য শক্তির আঁধার সূর্য, বিশাল কালো মূর্তির অবয়ব সেই হার না মানা মেঘ, ঘূর্ণায়মান বায়ুমণ্ডলী এবং দৃঢ়মান সেই পর্বতশৃঙ্গের  মিথস্ক্রিয়ায় সৃষ্ট সেই অপরূপ সৌন্দর্য দেখে আমার মনের হারমনিতে বেজে উঠলো লুইস আর্মস্ট্রঙের সেই কয়েকটা লাইন, 

I see friends shaking hands. Saying, “How do you do?” 
They’re really saying, “I love you”

Oh yeah… What a wonderful world!!! o:)  

You may also like...

  1. ১। কৃষ্ণগহ্বর গোলাকার না
    ২।কৃষ্ণগহ্বর কোন গহ্বর না

    লিখতে থাকুন । একটু বড় হলে ভালো হয় । :-bd :-bd :-bd

    thuoc viagra cho nam
    amiloride hydrochlorothiazide effets secondaires
  2. প্রকৃতির মাঝে হারিয়ে গিয়েছিলাম প্রায় :bz চমৎকার লেগেছে লেখাটি… =D> :-bd

    side effects of drinking alcohol on accutane
  3. তারিক লিংকন বলছেনঃ

    “এদিকে ট্রেন চলছে ১৩০ থেকে ১৫০” ‘প্রতি ঘণ্টায় ১৩০ থেকে ১৫০ কিমি/মাইল করে’… লিখলে বুঝতে সুবিধা হত!! :-j :-j :-j

    আর্মস্ট্রং এর গানটি সবার জন্যেঃ

    ‘অনুভুব করলাম অদ্ভুত এক ভালোলাগার আকর্ষণে আমার শরীর অবস হয়ে যাচ্ছে, আমার দু-নয়ন স্থির হোল প্রকৃতির সে এক অদ্ভুত মাদকতায়, মনের ভিতর জেগে উঠল এক বিস্ময়কর অনুভূতি। অপলক দৃষ্টিতে চেয়ে আছি দূরের পর্বত শৃঙ্গের দিকে।” — নেশা ধরাই দিলেন কবে যে যাব আবার ভ্রমণে। আমাদের বান্দরবনের রূপ আমার কাছেও এরাম লাগে। =D> =D> =D> =D> =D> :কুপায়ালাইছ মামা-ভিক্টরি: :কুপায়ালাইছ মামা-ভিক্টরি: :কুপায়ালাইছ মামা-ভিক্টরি:

    সরল এবং সুন্দর বর্ণনায় আপনার অনুভূতি পড়ে ভাল লাগলো!! আরেকটু বড় হলে আসলে মন্দ হত না! ভাল লাগা একটু লম্বা হলেই ভাল… :-j :-j :-j

    • প্রথমেই ধন্যবাদ জানায় গানটির লিঙ্ক দেয়ার জন্য। এমন অনুভুতির সাথে ব্যাকগ্রাউন্দে “what a wonderful world” … এক মহাজাগতিক মায়াজালের সৃষ্টি করে।
      নিজের চোখে দেখা প্রকৃতির সেই অদ্ভুত অপরূপ সৌন্দর্য কখনও বর্ণনা করতে পারব এমনটি ভাবিনি। তাইতো ১ বছর পর লিখলাম স্মৃতির ডায়েরী থেকে। আশা করি দুই দিনের সেই ভ্রমণ কাহিনী নিয়ে খুব শীঘ্রই হাজির হব আপনাদের মাঝে।
      আর সর্বোপরি সুন্দর ও সাবলীল এই মন্তব্য এর জন্য ধন্যবাদ থাকলো আমার অন্তরের অন্তস্থল থেকে … সাথে থাকবেন… :) acne doxycycline dosage

    can levitra and viagra be taken together
  4. মাশিয়াত খান বলছেনঃ

    ভাল লাগল। প্রকৃতিকে এত কাছ থেকে অনুভব করা হয়নি

  5. দুরন্ত জয় বলছেনঃ

    ‘আদিপত্ত’ বানান টা আধিপত্ত হবে বোধ হয়।
    ভাল লেগেছে… কল্পনার দুনিয়াটাকে সাজাচ্ছিলাম বর্ণনা মাফিক…

    লিখে যান… para que sirve el amoxil pediatrico

আপনার ই-মেইল ও নাম দিয়ে মন্তব্য করুন *

zoloft birth defects 2013

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Heads up! You are attempting to upload an invalid image. If saved, this image will not display with your comment.

can your doctor prescribe accutane