মধ্যরাতের বৃষ্টি ও লাল রঙ

2530

বার পঠিত

১।
ওই যে বাবুই পাখির একটা বাসা না? হুম। এই শহরে বাবুই এল কোথা থেকে!! দুইটা বাবুই দেখা যাচ্ছে। এই বৃষ্টিতে ঘরের মধ্যে ওরা কি করে? সুখ দুঃখের গল্প?? ওদের কত মজা! মনের কথা বলতে মুখ খুলতে হয় না…মৌনতাই বলে। পথ পার হতে হয় না। উঁড়লেই চলে।।

আচ্ছা বৃষ্টিতে কখনো আকাশে পাখি উঁড়তে দেখেছো? আমি দেখি নি। কেন ওড়ে না?ওদের কি জলের মাঝে ডানা ডুবিয়ে দিতে মন চায় না? আমার মতোন ওরাও কি বৃষ্টি ভালবাসে না? নাকি ভয় পায় কখন মেঘের ফাঁক দিয়ে বিদ্যুত্‌ পরী গর্‌জে উঠবে আর চমকে দেবে ওদের?

আজকের বৃষ্টিটা এরকম করে ঝরছে কেন? ঝরঝর ঝরঝর। এভাবে তো পাতা পড়ে। বৃষ্টি পড়বে আরো জোরে। তুমুল বেগে। বিদ্যুত্‌ চমকাবে। এভাবে‌ বর্ষণের কারণ কি এই যে এখন মাঝ রাত?এখন তো আরো জোরে বর্ষণ হওয়া উচিত। কেও জেগে নেই। সত্যিই কি কেও জেগে নেই?এই বৃষ্টি তবে উপভোগ করছে কে?হয়তোবা শুধু লাল রংটুকু মুছে ফেলতে শীতের শেষে হঠাত্‌ উঁড়ো চিঠি দিয়ে বৃষ্টি নেমে এসেছে।

সবকিছু এমন ঝাপসা কেন? ঝাপসা কি আমার চশমার কাঁচ নাকি মনের আঁচ?

২।
সেদিনের কথা মনে আছে? সেই প্রথম যেদিন আমার সাথে দেখা করার জন্য কত দূর থেকে তোমার আসার কথা ছিল। ফেসবুকে আর কদ্দিনই বা? আমি তোমার জন্য রাত জেগে প্রোট্রেট আঁকলাম। সকালে ক্লাস শেষে দাঁড়িয়ে ছিলাম ওটা হাতে নিয়ে। আকাশে ছিল ভরা রোদ্দুর। হঠাত্‌ এক চিলতে রোদের পেছনে লুকিয়ে থাকা মেঘটা একটু একটু করে নিচে নামতে লাগল ফোঁটা ফোঁটা হয়ে যার ভারী একটা রূপ নিল। জল ছড়াল আমার হাতের কাগজে। রং ছড়াল চারিদিকে। বৃষ্টির কবল থেকে প্রোট্রেটটা বাঁচানোর নিরন্তর ছেলেমানুষি প্রচেষ্টায় তুমি হাত বাড়ালে না।।

আজও তুমি আসতে না।তাই আমিই হলাম উদ্যোক্তা…

আসলে আমার ভুল হয়ে গেছে…অনেক বড় ভুল!

৩।
রাস্তায় কেও নেই!
মনে হচ্ছে বৃষ্টিতে ১৪৪ ধারা জারি করে দেওয়া হয়েছে।
ভালই হয়েছে কেও নেই। থাকলে আবার এই মাঝরাতে রাস্তায় আমার পদচারণা দেখে মনে করত হিমু অথবা…হা হা।
আমি অবশ্য হিমু বা অন্য কেও নই। আমি নিতান্তই সাধারণ একটা মানুষ। অন্যদের ভাষায় ‘মেয়ে মানুষ’। তোমার ভাষায় না হয় ‘আজব’…

৪।
তুমি কি আজ খেয়াল করেছিলে, আমি একটা শাড়ী পরেছিলাম? লাল রঙের।
আমি চুড়ি পরেছিলাম। লাল রঙের।
চুলের ফাঁকে একটা গোলাপ দেখেছিলে? লাল রঙের?

সেই শাড়ী যা কোনোদিনোও পরব না বলে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ ছিলাম। সেই চুড়ি যা পরতে গেলেই হাত কাটে আমার। তাই কখনোই পরতাম না। ফুল- যা শুধু টবে দেখেই সন্তুষ্ট থাকতাম। এর আর কোন ব্যবহার চোখে পড়ত না।
সেই লাল রঙ যা কোনোদিনও সহ্য হত না। অসহনীয় একটা রঙ ছিল…
অথচ সেই আমি আজ পুরো লাল রঙ্গে আচ্ছাদিত! আমি!!!

আচ্ছা আমাকে কি লাল রঙ্গে ভাল লাগছিল? তুমি বললে না তো! ভাল লাগে নি, না? বুঝেছি। আমার লাল রংকে সহ্য হত না বলে লাল রঙেরও আমাকে সহ্য হয়নি! বেশ…
তুমি কিছু একটা তো বলতে পারতে! নাকি?

৫।
-আমি তোমাকে কিছু বলতে চাই।
-কি বলবি, বল।
-না, এখন না। দেখা করা যাবে না?
-আজকে তো সময় হবে না। অনেক কাজ।
-অল্প একটু সময় লাগবে।প্লিজ আসো!
-উমম…আচ্ছা ঠিক আছে। সন্ধ্যায় পাবলিক লাইব্রেরি যাব। তখন ওদিকে আসিস। একা একা আসতে পারবি?
-হুম। খুব পারব।

সন্ধ্যায়………
তুমি রাস্তার এক পাশে আমি আরেক পাশে। অল্প একটু দূর।

৬।
দেখেছো, তোমার প্রিয় লাল রঙও তোমাকে ছেড়ে চলে গেল..।।
তরল লাল।
আমার হাতের মুঠোয় এই যে লেগে আছে। বৃষ্টিকে মুছে নিতে দেইনি।

আজ তুমিও আমার মত লালে লালে আবৃত।
তোমারটা তরল লাল।

তোমার কাছে এখন আমিও অবশ্য নেই।

তুমি এক পাশে আমি অন্য পাশে। অনেকখানি দূর।।।

৭।
রাস্তাটা তুমি পার হতে গেলে কেন? আমিই পার হতাম।
রাস্তা পার হতে যেয়ে দূরত্বটা যে অনেক খানি বেড়ে গেল!!!!!

তোমার লাল রঙ সব মুছে যাচ্ছে বৃষ্টিতে…।

সেই বৃষ্টির একপাশে তুমি আরেক পাশে আমি। মাঝখানে অনেকখানি দূরত্ব…।

zovirax vs. valtrex vs. famvir

You may also like...

  1. হাহাহাহা।
    দুঃখিত।
    বাকিটাও ভাল হয়েছে। যেসব যুক্তি দিয়েছেন তা তো মানতে বাধ্য। তবে পুরুষ সমাজ শুধু ওইটুকুই মানতে রাজি যেটুকু তাদের স্বার্থে যায়।

  2. … ভালো হয়েছে!

    আগামীর বিনির্মাণে সভ্যতায় স্বাগতম! আশা করছি আপনাদের পদচারণায় সভ্যতার উঠান মুখোরিত হয়ে উঠবে ..

  3. অংকুর বলছেনঃ

    থিমটা ভালোভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন। যার যা ইচ্ছা ভেবে নিতে পারবে। কারো কাছে হয়ত প্রেমম কাহিনী,কারো কাছে বন্ধুত্ব। ঝাপসা ঝাপসসা একটা ভাব আছে সেটা ভালো লেগেছে। আর ছেলেরা কি পছন্দ করে সেটা আসলে চাপা রাখতে পছন্দ করে। যেমন ধরুন প্রিয় মানুষটাকে অনেক সুন্দর লাগছে,কিন্তু বলবেনা। আসলে এটাকে লজ্জাও বলা ঠিক হবেনা। স্বভাব বলতে পারেন। :razz:

    all possible side effects of prednisone
  4. তারিক লিংকন বলছেনঃ

    লিখনি শৈলীতে একটা কোমল ভাব আছে আর আপনার আইডি’তে নাম বিচ্ছু, কিচ্ছু বুঝলাম না। আবার শেষের দিকে কাব্যের ঢঙে শেষ করলেন। যদিও আমার কাছে কিছুটা স্মৃতিচারণ মূলক মনে হল …
    বিচ্ছু পাবলিক থেকে কোমল লেখা ক্যামনে কি?
    যাহোক, সভ্যতায় স্বাগতম…

  5. অপার্থিব বলছেনঃ

    হুমায়ুন আজাদ বলেছিলেন ” প্রতিটি স্বার্থক প্রেমের কবিতা বলতে বুঝায় যে কবি তার প্রেমিকাকে পায় নি আর প্রতিটি ব্যর্থ প্রেমের কবিতা বলতে বুঝায় যে কবি তার প্রেমিকাকে বিয়ে করেছে।”
    মনে হয় কথাটি গল্পের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য । যাই হোক শেষের এই মর্মান্তিকতার কারনে গল্পটি ভাল লাগলো…ইনফ্যাক্ট বেশ ভাল…

  6. সবচেয়ে বেশি চোখে লাগলো উপস্থাপনাটাই। দারুণ! কাব্যিক ঢঙে বর্ণনার ধরণটা অবশ্যই প্রশংসার দাবীদার। ক্রমশ শৈল্পিক একটা সূচনা দিয়ে এগিয়ে ক্রমশ গভীরে প্রবেশ এবং একই সাথে খানিকটা কৌতুহল দিয়ে পাঠককে টেনে রাখার দ্বৈত কাজে সফলতার দাবী অবশ্যই করতে পারেন।

    শুভ কামনা রইল সভ্য পদচারণায়!

  7. দুরন্ত জয় বলছেনঃ

    আমি কবে এমন লিখব!
    ভাল লেগেছে, আরে লেখিকাকে নয় লেখাকে :-D :-D
    আপনার নাম বিচ্ছু… দেখা যাবে কে কতটুকু বিচ্ছু ;-)

    সত্যি বর্ননা দেয়ার ভঙ্গিটা অসাধারণ…

  8. “জল ছড়াল আমার হাতের কাগজে। রং ছড়াল চারিদিকে। বৃষ্টির কবল থেকে প্রোট্রেটটা বাঁচানোর নিরন্তর ছেলেমানুষি প্রচেষ্টায় তুমি হাত বাড়ালে না।”
    আমার সাথে এই ঘটনা একবার ঘটেছিলো, তখন সে হাত না বাড়িয়ে বকা দিয়েছিলো। :sad:

  9. ইয়ে মানে, এইটা কি বিচ্ছুর লেখা? পড়ে তো বিশ্বাস হচ্ছে না… মানে বলতে চাইছি, বিচ্ছুমিতে পিএইচডি ডিগ্রি নেওয়া একজন সফল বিচ্ছু যে মনের গহীনে এহেন কোমল অনুভূতি লালন করেন, সেটা আসলেই প্রথমে বোঝাই যায়নি… অসম্ভব সুন্দর এক গল্প… অসম্ভব সুন্দর…

    লেখা যেন না থামে ম্যাডাম…

  10. ডন সাব,
    হাজার হোক, বিচ্ছুরাও মানুষ! ;-)

    metformin tablet
  11. অত্যুক্তি ছিল!
    সুন্দর মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।
    চেষ্টা চলবে… :-)

  12. doctus viagra
  13. লেখাটা ভাল্লাগছে…
    সভ্যতায় স্বাগতম।

wirkung viagra oder cialis

আপনার ই-মেইল ও নাম দিয়ে মন্তব্য করুন *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

zoloft birth defects 2013

Heads up! You are attempting to upload an invalid image. If saved, this image will not display with your comment.