সংলাপ না কি সরকার পতন?

334 levitra 20mg nebenwirkungen

বার পঠিত can your doctor prescribe accutane

সবাই দেখতে পারছি, বিরোধী দল রাজপথে নামতে পারছে না। রাজনৈতিক সমাবেশ করার মতো শক্তি এবং জনসমর্থন এই মুহূর্তে তাদের নেই। বিএনপি বার বার দাবী করে আসছে, তাদের নেতা কর্মীদের রাজপথে নামতে দেওয়া হচ্ছে না। পক্ষান্তরে বলা যায়, সরকারী আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে রাজপথে নেমে আন্দোলন করার ক্ষমতাও তাদের নেই। তাহলে এটা স্পষ্ট প্রতীয়মান হয়, সরকারের উপর চাপ সৃষ্টিতে তারা রাজনৈতিকভাবে পুরোপুরি ব্যর্থ। একটা ব্যর্থ রাজনৈতিক দলের দাবী মানতে সরকার কেন বাধ্য হবে? বিরোধীদল তাদের দাবী দাওয়া আদায়ে গনসম্পৃক্ততা বাড়িয়ে সোচ্চার আন্দোলন গড়ে তুলবে, দেশের সকল শ্রেণীর মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করে সরকারকে সেই দাবীর কাছে মাথা নোয়াতে বাধ্য করতে হবে। তবেই না আন্দোলন!

এখন, দেশের বেশিরভাগ সুশীল শ্রেণীর বুদ্ধিজীবীরা দেশের চলমান সঙ্কটকে মোকাবেলা করার জন্য সরকারকে সংলাপে বসার আহবান জানাচ্ছেন। যে রাজনৈতিক দলটি আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের কাছে একটি সুনির্দিষ্ট ম্যাসেজ পৌছাতে পারে নাই তাদের সাথে কিসের ভিত্তিতে সংলাপ? যে দাবীতে সরকারকে আলোচনায় বসতে বলা হচ্ছে সেই দাবিটি যতক্ষণ পর্যন্ত গনমানুশের দাবী নয় ততক্ষন পর্যন্ত সে দাবী মানতে সরকার বাধ্য নয়। ধরে নিন, সরকার বিএনপি’র সাথে সংলাপে গেল তাহলে দেশের যে শ্রেণীর মানুষ মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষ শক্তির সহযোগী হিসেবে বিএনপিকে অপছন্দ করে তারা কি সরকারকে প্রশ্নবিদ্ধ করবে না? তারা কি বলবে না, একটি মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষ দল হয়ে জামাত এবং যুদ্ধাপরাধীদের সাথে কি কারনে সংলাপে গেল সরকার? এই প্রশ্ন উঠতে পারেনা? সরকার কি এই জবাব দিতে বাধ্য নয়?

মোদ্দা কথা, একটি দাবী আদায়ের জন্য যে পরিমান গন মানুষের মতামত লাগে সেই পরিমান মানুষকে বিএনপি কনভিন্স করতে ব্যর্থ হয়েছে। বিএনপির দাবী দেশের বেশিরভাগ মানুষের কাছে কোন নির্দেশনা নিয়ে যেতে পারেনি বা বিএনপি চাপ সৃষ্টি করার মতো শক্তি’র স্ফুরন ঘটাতে ব্যর্থ হয়েচে।তাই সরকার বিএনপির দাবীর কাছে নতি স্বীকার করবে না, এটাই স্বাভাবিক।

সরকার কার সাথে সংলাপ করবে?

সারাদেশে অবরোধের নামে যে সহিংসতা চলছে তার দায় স্বীকার করছে না বিএনপি তথা বিশদলীয় জোট। আবার বিশদলীয় জোট সরকারের উপর এমন রাজনৈতিক চাপ সৃষ্টি করতে সমর্থ হয়নি যার কারনে তাদের সাথে সংলাপ বা আলোচনায় যাবে সরকার। এখন, সরকার যদি সহিংসতা নিরসনে সত্তিকারেই সংলাপে আগ্রহী হয়ে থাকে তাহলে সেই পেট্রোলবোমা নিক্ষেপকারী সন্ত্রাসী বাহিনীর সাথেই তাদেরকে আলোচনায় বসতে হবে। পেট্রোলবোমা নিক্ষেপকারী এই জঙ্গি দলের এখন পর্যন্ত দৃশ্যমান কোন রাজনৈতিক পরিচয় নাই তাই এই সন্ত্রাসী বাহিনীকেই তাদের পরিচয় প্রকাশ করতে হবে এবং সরকারের কাছে তাদের দাবী দাওয়া পেশ করে বলতে হবে যে তাদের দাবী পূরণ না হওয়া পর্যন্ত এই সন্ত্রাস চলতেই থাকবে। তবেই না চাপে পড়ে সরকার তাদের সাথে আলোচনায় যেতে বাধ্য হবে। বিরোধী দল বলছে তারা বা তাদের কেউ সন্ত্রাস করছে না, তাহলে প্রশ্ন উঠতেই পারে, তাদের সাথে তাহলে সংলাপ করে লাভ কি? বিএনপি যদি এই সন্ত্রাস না করে তবে সরকার বিএনপি’র সাথে সংলাপ করতেই থাকবে আর অন্যদিকে অন্য কেউ তাদের দাবী বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত পেট্রোলবোমা ছুড়তেই থাকবে কেননা তাদের এজেন্ডা’র সাথে বিশ দলীয় ঐক্য জোটের কোন সম্পৃক্ততা থাকার কথা’ই নয়(যদিও এজেন্ডা মিলে যায় তবে তারা কোন না কোনভাবে বিশদলীয় জোটের’ই অংশ এবং তাদের কর্মের দায় অবশ্যই বিশ দলীয় জোটের ঘাড়েই বর্তায়।)সেই হিসেবে, বিএনপির দাবী দাওয়া পূরণ হওয়ার সাথেও তাদের কোন যাওয়া আসার কথা নয়। তাই, বিশ দলীয় জোটের সাথে আলোচনা করে যদি এই সন্ত্রাস’ই না থামে তাহলে সংলাপ করে অযথা সময় ক্ষেপন কেন করতে চাইবে সরকার? side effects of drinking alcohol on accutane

বিএনপি পড়ে গেছে গ্যাঁড়াকলে! এখন তাই তারা সংলাপের কথা বলতেই চাইছে না। কারন, সংলাপের প্রশ্ন এলে সাথে সাথে সহিংসতা বন্ধের দাবী উঠবেই। সরকার নিশ্চয় সহিংসতা বন্ধের প্রতিশ্রুতি না পেলে সংলাপে বসবে না। বিএনপি যদি বলে, “আচ্ছা, আমরা সহিংসতা বন্ধ করছি, আপনারা সংলাপের ব্যবস্থা করুন” তাহলে এতো দিন যে তারা বলে আসছে তারা এই সহিংসতা করছে না সেটা মিথ্যা প্রমানিত হয়ে যাবে। এমনকি, সংলাপের পর যদি চলমান সহিংসতা বন্ধ হয়ে যায় তবেও প্রমানিত হবে যে এই সহিংসতা আসলে বিএনপি বা বিশদল করেছিল যা তাদের দাবী আদায়ের সাথে সাথেই বন্ধ হয়ে গেছে। এই সাথে, প্রমাণ হবে তিপ্পান্ন জন মানুষকে পুড়িয়ে মারার দায় আসলে তাদের’ই। এটা হবে বিএনপির রাজনৈতিক মৃত্যু’র চূড়ান্ত ধাপ। সুতরাং, তারা সহিংশতার দায় স্বীকার করে সংলাপে যেতে চাইবে না, তারচে বরং হামলা মামলা গুম খুনের দায় আওয়ামীলীগের ঘাড়ে চাপিয়ে সরকার পতনের দাবীতে স্থির থাকাটাই অনেকটা নিরাপদ। সুতরাং, সরকার চাইলেও যে বিএনপি সংলাপে আসবে না এটা প্রায় নিশ্চিত।

এখন অপেক্ষার পালা।

You may also like...

  1. দুরন্ত জয় বলছেনঃ

    মজা পেয়েছি। এতদিন বিএনপি এগুলো না ভাবলেও এখন ভাববে।
    আর কথা হল জনগণকে মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে যে দাবী আদায়ের চেষ্টা ওটা তো জনগনের জন্য হতে পারে না!

আপনার ই-মেইল ও নাম দিয়ে মন্তব্য করুন * doctorate of pharmacy online

Question   Razz  Sad   Evil  Exclaim  Smile  Redface  Biggrin  Surprised  Eek   Confused   Cool  LOL   Mad   Twisted  Rolleyes   Wink  Idea  Arrow  Neutral  Cry   Mr. Green

achat viagra cialis france

puedo quedar embarazada despues de un aborto con cytotec

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Heads up! You are attempting to upload an invalid image. If saved, this image will not display with your comment.

will i gain or lose weight on zoloft
viagra en uk
will metformin help me lose weight fast
side effects of quitting prednisone cold turkey
ovulate twice on clomid