একজন অপরাধীর স্বীকারোক্তি

330

বার পঠিত

: হে ধর্মাবতার আমাকে বলবার সুযোগ দেবার জন্য আপনাকে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। সেদিনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে অনেক মুখরোচক, রোমহর্ষক এবং রোমাঞ্চকর গল্পই আদালতে পেশ করা হয়েছে। আমি এবার সত্য গল্পটা বলতে চাই। এরপর আপনারা যে শাস্তি ধার্য করবেন তাই আমি মাথা পেতে নেব।
: আপনাকে পাঁচ মিনিট সময় দেয়া হল। এর মাঝে আপনার সকল বক্তব্য শেষ করবেন।
: ধন্যবাদ ধর্মাবতার। কিন্তু পাঁচ মিনিটে কি পুরো রামায়ন পাঠ করে ফেলা যায়? রামায়ন যেমন পাঁচ মিনিটে পাঠ করা যায় না তেমন এই ঐতিহাসিক ঘটনাও বলা অসম্ভব। তবু যতদূর পারি বয়ান করছি শুনুন।

ঘটনার আগের দিন ছেলেটি গিয়েছিল তার দেবীর মন্দির দর্শন করতে এবং দেবীকে দর্শন করতে। কিন্তু দেবী তাতে গড়রাজি। দেবী চায়না ছেলেটি তার দেখা পায় এবং পূজোয় বসে। তবু সেই বাউন্ডুলে ছেলেটি অনেক খুঁজে মন্দিরের সন্ধান পায়। হাসবেন না! আপনারা হয়তো ভাবছেন একজন নাস্তিক কেন দেবী দর্শনে যাবে কিংবা পূজোতেই বা বসবে কেন? আদালতে যাকে নাস্তিক প্রমাণ করা হয়েছে তারও আরাধ্য দেবী থাকতে পারে। হ্যা ছেলেটির দেবী কোনো জড়পদার্থ নয়। জীবন্ত, হাসতে পারে, কাঁদতে পারে, চলতে পারে। যাকে ছেলেটি সবসময় অরণ্যের সাথে তূলণা করে। ছেলেটির হৃদয়বেদীতে দেবী অধিষ্ঠান। যাই হোক ছেলেটি মন্দিরের দর্শন পায় ঠিকই কিন্তু দেবী আড়লে থাকেন। দেবী ছেলেটির উপর প্রচন্ড রেগে যান। দেবীর দর্শন না পেয়ে ছেলেটি বুকভরা শূণ্যতা নিয়ে এদিক ওদিক ঘুরে বেড়ায়। চিন্তা ভাবনা করে সে স্থির করে পরদিন সকালে দেবী যখন কলেজ বাসে চেপে কলেজে যেতে আসবেন তখন সে দেবীর সাথে অতর্কিতে সাক্ষাত করবে। আবারো বলছি হাসবেন না। হ্যা ছেলেটির দেবী কলেজেও যায় কারণ তিনি মানবী। তো যেখানে ছিলাম ধর্মাবতার, ছেলেটি খুব সকালে বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছে যায়। অপেক্ষা করতে থাকে। স্বপ্ন স্বপ্ন চোখে ফাঁকা রাস্তায় তাকিয়ে থাকে। তারপর কী ভেবে সে হাঁটতে থাকে। অনেকটা পথ হাঁটতে থাকে। ছেলেটি তখন খুব নিরবে কাঁদতে থাকে। না ছেলেটির চোখে জল ছিল না। চোখের জল অনেক আগেই ফুরিয়েছে। তার কান্না ছিল মগজের ভিতর। প্রচন্ড যন্ত্রণা হচ্ছিল তার বুকের ভিতর। দেবী -দর্শনের ব্যর্থতা তাকে উন্মাদ করে দেয়। সে শহরের মাঝে ছুটতে থাকে। তখনই ঘটে অঘটন। ব্যাপারটাকে মোটামুটি অঘনঘটনপটীয়সি বলতে পারেন। হঠাৎ ছেলেটি দেখে রাস্তার পাশে একটি ফুলের বাগান। সে কোনোদিকে না ভেবে বাগিচায় ঢুকে যায়। সেখানে সে তার দেবীর সবচেয়ে প্রিয় ফুলের সন্ধান পায়।
: আপনার সময় শেষ। এবার বলা বন্ধ করুন।
: না ধর্মাবতার, আমাকে আরো এক মিনিট সময় দেয়ার জন্য আপনার নিকট মিনতি করছি। এক মিনিট সময় ভিক্ষা চাইছি। আদালতের সেদিনের সেই ঐতিহাসিক ব্যাপারটা জানা দরকার।
: না আপনাকে আর সময় দেয়া হবে না। আপনার শাস্তি ধার্য হয়ে গেছে। আপনি যে অপরাধটি করেছেন তা সমাজের জন্য খুবই গুরুতর ঘটনা। আপনি পবিত্র বাগিচা থেকে স্বর্গীয় ফুল রক্তিম জারবেরা চুরি করেছেন। এ বড্ড অন্যায়। এ অপরাধের জন্য আপনাকে মৃত্যুদন্ডে দন্ডিত করা হল। আপনার মৃত্যু হবে হেমলক বিষে। আদালতের কার্যসময় সমাপ্তির কারণে আজকের মতন আদালত মুলতবি ঘোষণা করা হল। zovirax vs. valtrex vs. famvir

wirkung viagra oder cialis

You may also like...

আপনার ই-মেইল ও নাম দিয়ে মন্তব্য করুন * buy kamagra oral jelly paypal uk

Question   Razz  Sad   Evil  Exclaim  Smile  Redface  Biggrin  Surprised  Eek   Confused   Cool  LOL   Mad   Twisted  Rolleyes   Wink  Idea  Arrow  Neutral  Cry   Mr. Green

glyburide metformin 2.5 500mg tabs

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Heads up! You are attempting to upload an invalid image. If saved, this image will not display with your comment.

posologie prednisolone 20mg zentiva
para que sirve el amoxil pediatrico