মৃতের জন্ম

507

বার পঠিত

শুনেছি, বেঁচে ছিলাম, একদা কখনো
নিঃসীম শূন্যতা মাঝে। আজো কানে বাজে
নীরবতা মহাবিশ্বে যতটুকু আছে।
শূন্যতায় শুরু হয়ে অসীমের পরে
মম সত্তা ছিল একা। অনুভূতিহীন
বোধ ছেয়ে রেখেছিল আমায়। স্রষ্টার
আদেশ শুনেছি আমি। অতপর আমি
ধেয়ে আসি পৃথিবীর দিকে, জন্ম নিতে।

অতপর ভ্রমণ এ ধূলি ধূসরিত
ধরায়। শূন্যতা ছেড়ে অস্তিত্বের ভীড়ে
চিনেছি আলোতে এই কালো পৃথিবীকে।
এতে চিৎকারে ধিক্কার; কাম, ক্রোধ, লোভ,
পাপাচার প্রতিক্ষণে। বুঝেছি তারপর
শূন্যতাতেই বেঁচেছি। জন্মে মরে গেছি। zithromax azithromycin 250 mg

viagra vs viagra plus
para que sirve el amoxil pediatrico
nolvadex and clomid prices

You may also like...

  1. ইলেকট্রন রিটার্নস বলছেনঃ

    অমিত্রাক্ষর ছন্দ ব্যবহার করে সনেট আকারে লিখেছেন! কিন্তু সনেটে আলাদা এবং সুনির্দিষ্ট মিলবিন্যাস থাকে! সেটা দেখতে পেলাম না!

    তবে কবিতা হিসেবে সত্যিই খুব ভালো লিখেছেন আপনি!

    cialis new c 100
    renal scan mag3 with lasix
  2. অনুস্বার বলছেনঃ

    ইয়ে মানে, কবিতা কম বুঝি, তবে মনে হচ্ছে আপনি অনেকগুলো ধারা নিয়ে কোন এক্সপেরিমেন্ট করেছেন… পড়তে কিন্তু অসাধারন লাগলো…

  3. ভাল লাগলো। চমৎকার একটি প্রচেষ্টা। আশাকরি সামনে আরও পরিপক্ব কবিতা পাব

  4. তারিক লিংকন বলছেনঃ

    তালীয় Sonneto থেকে Sonnet । যার অর্থ ‘ছোট সঙ্গীত’…

    সেই অর্থে ইলেকট্রনের সাথে কিছুটা একমত, সঙ্গীতময় কবিতার মূর্ছনা সেইভাবে পেলাম না।

    তবে যেহেতু প্রথম আট লাইন হল “Octav” আর শেষ ছয় লাইন হল “Sestet” এবং Octav-এর প্রথম চার লাইনে করেন কোন সমস্যার সুচনা প্রকাশ পায় কিংবা আকাঙ্খা উত্থাপিত হয় সাবলীল কাব্যের ঢঙ্গে!অন্ত্যমিল থাকে এভাবে– কখখক কখখক। missed several doses of synthroid

    এরপর শেষ ছয় লাইনের শুরু আর ভাবের টুইস্ট। ভাব এগুতে থাকে পরিণতির দিকে। এটি Sestet; যা সমাধান বা উপসংহার নিয়ে শেষ হয়। আর এখানে অন্ত্যমিল থাকে এভাবে– গঘঙ গঘঙ। [তথ্যসুত্র-উইকিপিডিয়া]

    এইবার সেই আলোকে আপনার কবিতাটিকে দেখলে আমি বলব! মানুষের জীবনের জন্মকে সমস্যা বা আকাঙ্ক্ষা হিসেবে চিহ্নিত করে পরে মহা-শূন্যতাতে শেষ করাটা কিছুটা নেতিবাচক হলেও আমার ভাল লেগেছে… তবে যদি আপনার প্রথম সনেট হয়ে থাকে তবে কিছু ছাড়তো বোদ্ধা পাঠকেরা দিবেই!! ইলেকট্রন ভাই বিবেচনায় রাইখেন…

    অনেক অনেক শুভ কামনা আপনার কাব্য চর্চায়…

    • অ্যাকচুয়েলি এটা সনেট হিসেবে লেখার আমার কোনই ইচ্ছে ছিল না।

      কম বুঝি বলে অক্ষরবৃত্ত ছন্দের প্রতি আমার আগ্রহ চিরন্তন। তো কিছুদিন ধরে তারই একটা ধারা পয়ার ছন্দে কবিতা লিখছিলাম। একদিন কোথায় যেন মেঘনাদ বধ কাব্যের কিছু অংশ পড়লাম। সাথে সাথে অমিত্রাক্ষর ছন্দে কিছু লিখতে ইচ্ছে হল। পয়ার বাংলা ভাষায় অনেক আগে থেকেই ব্যবহৃত হলেও মধুসূদন দত্তের সাড়াজাগানো ছন্দ অমিত্রাক্ষর সে তুলনায় শিশু। তো সেই শিশুকে নিয়েই কিছু কাটাছেড়া শুরু করলাম।

      লিখতে লিখতে দেখি প্রথম ভাবটুকু শেষ করতে করতে নয় লাইনের মত হল। আবার পয়ার/অমিত্রাক্ষর ছন্দে প্রতি লাইনে মাত্রা বিন্যাসও হয় ৮+৬ বা মোট ১৪ মাত্রা। তো সেই নয় লাইনকে আট লাইনে শেষ করে, পরেরটুকু দিলাম ৬ লাইনে শেষ করে। ব্যস এই আমার প্রথম সনেট লেখার অপচেষ্টার কাহিনী।

      আশা করি পরের বার চেষ্টা করলে, মিলবিন্যাসও থাকবে। আফটার অল ছন্দের চেয়ে অন্তমিল অনেক সোজা জিনিস। clomid over the counter

আপনার ই-মেইল ও নাম দিয়ে মন্তব্য করুন *

will i gain or lose weight on zoloft

thuoc viagra cho nam

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Heads up! You are attempting to upload an invalid image. If saved, this image will not display with your comment.

capital coast resort and spa hotel cipro
acquistare viagra in internet