Category: সাম্প্রতিক

মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় ( কথা সাহিত্যের মানিক)

  মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলা কথা সাহিত্যের একজন উজ্জ্বল মানিক । তাঁর পুরো নাম প্রবোধকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় ।প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর পৃথিবী জুড়ে মানবিক মূল্যবোধের চরম সংকটময় মূহুর্তে বাংলা কথা-সাহিত্যে যে কয়েকজন লেখকের হাতে সাহিত্যজগতে নতুন এক বৈপ্লবিক ধারা সূচিত হয় মানিক বন্দোপাধ্যায় ছিলেন তাদের মধ্যে অন্যতম। তার রচনার মূল বিষয়বস্তু ছিল মধ্যবিত্ত সমাজের কৃত্রিমতা, শ্রমজীবী মানুষের সংগ্রাম, নিয়তিবাদ ইত্যাদি।ফ্রয়েডীয় মনঃসমীক্ষণ ও মার্কসীয় শ্রেণীসংগ্রাম তত্ত্ব দ্বারা গভীরভাবে প্রভাবিত হয়েছিলেন যা তার রচনায় ফুটে উঠেছে। প্রথম জীবন – মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় ১৯০৮ খ্রিষ্টাব্দের ১৯ মে (১৩১৫ বঙ্গাব্দের ৬ জ্যৈষ্ঠ) বর্তমান ঝাড়খণ্ড রাজ্যের দুমকা শহরে জন্ম গ্রহণ করেন। জন্মপত্রিকায় তাঁর নাম রাখা হয়েছিল অধরচন্দ্র। তার পিতার...

irbesartan hydrochlorothiazide 150 mg

৪০-বছরের ভারত-বাংলাদেশ বৈরিতা : সমাধান কোন পথে?

গত বছর কোলকাতার রাস্তায় টেক্সিতে ভ্রমনকালে বাংলাভাষী টেক্সিওয়ালার খেদোক্তি ছিল, ‘‘একাত্তরের স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতের প্রায় ২০,০০০ সেনার রক্তে বাংলাদেশ রঞ্জিত হলেও এবং তখনকার অভাবী কোলকাতার মানুষের বাংলাদেশের যুদ্ধের প্রতি অকৃত্রিম সমর্থন, আর ১-কোটি শরণার্থীকে নানাভাবে সহযোগিতার পরও, বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ কেন এতো ভারত-বিদ্বেষী? কেন বাংলাদেশ ভারতের বিরুদ্ধে নানা কর্মকান্ডে অংশগ্রহণকারী সন্ত্রাসীদের সহায়তা করে? বাংলাদেশ কি পাকিস্তান’’? এরূপ অভিযোগ আরো শুনেছি হিন্দীভাষী চেন্নাইগামী ট্রেনযাত্রীর মুখে ‘করোমন্ডল এক্সপ্রেসে’। যদিও কোলকাতার অধিকাংশ মানুষ ‘বাংলাদেশ’ শব্দটির ব্যাপারে খুবই ‘নস্টালজিক’ এবং পশ্চিম বঙ্গের মতই তারা মনেপ্রাণে রাজনৈতিক বাংলাদেশকে ভালবাসে, বিশেষ করে এক সময় যাদের পূর্বপুরুষরা বাস করতো পূর্ববঙ্গ তথা বর্তমান বাংলাদেশে। সুসাহিত্যিক সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের মত...

সরকার কেন দায়ী ???

আজ বাংলানিউজ২৪ এ একটা খবর পরে খুব অবাক হলাম । আমাদের দেশের বিরধী দলের নেত্রী ( যদিও এখন আর বিরধী দল নয়) বলেছেন মেঘনা নদীতে লঞ্চ দডুবির ঘটনায় এ সরকার ব্যর্থ । আমি ঠিক বুঝলাম না এর সাথে সরকারে ব্যর্থ হওয়ার কারন কি ?? দুর্ঘটনা ঘটটেই পারে । সরকার তো আর লঞ্চ চালাচ্ছিল না । রক্ষনাবেক্ষনের কাজও তো সরকার করবে না ।  কিন্তু এইসব কতিপয় রাজনিতিবিদেরা এইসব দুর্ঘটনা  গুলোকেও একটা ইস্যু হিসেবে দাড় করাচ্ছে । যেখানে এখন সাহায্যের দরকার সেখানে তারা এসি করা রুমে বসে, হাতে একটা কাগজ নিয়ে, করুন বদনে সমবেদনা প্রকাশ করছেন । সমবেদনায় তো পেট ভরে না... zovirax vs. valtrex vs. famvir

accutane prices

মৃনাল সেন ( সেলুলয়েডের নক্ষত্র)

  মৃনাল সেন ভারতীয় সিনেমা জগতের একজন উজ্জ্বল নক্ষত্র । তিনি সত্যজিত রায় ও ঋত্বিক ঘটকের সমসাময়িক ছিলেন । তাদের মাঝে পেশাগত প্রতিযোগীতা থাকলেও একে অপরের কাজের প্রতি শ্রদ্ধাশীল ছিলেন । প্রথম জীবন- ১৯২৩ সালের ১৪ মে মৃণাল সেন বর্তমানবাংলাদেশের ফরিদপুরে  একটি শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পড়াশোনার জন্য কলকাতায় আসেন এবং স্কটিশ চার্চ এবং কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থ বিদ্যায় পড়াশোনা করেন। ছাত্রাবস্থায় তিনি কমিউনিস্ট পার্টির সাংস্কৃতিক শাখার সঙ্গে যুক্ত হন। যদিও তিনি কখনও কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য হন নি। চল্লিশের দশকে তিনি সমাজবাদী সংস্থা আই পি টি এর (ইন্ডিয়ান পিপ্‌লস থিয়েটার অ্যাসোসিয়েশন) সঙ্গে যুক্ত হন এবং এর মাধ্যমে তিনি সমমনভাবাপন্ন মানুষদের কাছাকাছি আসেন।... metformin gliclazide sitagliptin

“Stealth Freedom” ইরানী নারীদের লুকিয়ে স্বাধীনতার স্বাদ

কয়েকদিন আগে ফেবু ঘাঁটাঘাঁটি করতে গিয়ে একটি পেজের দিকে নজর পরল । নামটি আরাবিক । যেখান থেকে পেজটি শেয়া করা হয়েছিল সেখানে লেখা হয়েছিল পেজটি সম্পর্কে । আমরা সবাই ইরানের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত কঠোর পর্দা প্রথার কথা জানি । ৭ বছরের বাচ্চা থেকে শুরু করে সব নারীদের বোরকার মাঝে বন্দি জীবন কাটাতে হয় । হিজাব ছাড়া নিজেকে জনসম্মুখে উন্মক্ত করলে আপনাকে ৭০ টি বেত্রাঘাত আর ২ মাসের জেল হবে । কিন্তু কেও কেও এই ঝুকি টি নিচ্ছেন । যদিও ইরানে ফেসবুক নিষিদ্ধ, কিন্তু প্রক্সি সার্ভার আর ভিপিএন ব্যাবহারের মাধ্যমে সেখান থেকে ফেসবুক চালানো সম্ভব । ফেসবুকে ইরানি নারীরা হিজাব না পরে...

দাও ফিরে সে অরণ্য, লও এ নগর!

দাও ফিরে সে অরণ্য, লও এ নগর, লও যত লৌহ লোষ্ট্র কাষ্ঠ ও প্রস্তর হে নবসভ্যতা! হে নিষ্ঠুর সর্বগ্রাসী, দাও সেই তপোবন পুণ্যচ্ছায়ারাশি, গ্লানিহীন দিনগুলি, সেই সন্ধ্যাস্নান, সেই গোচারণ, সেই শান্ত সামগান, নীবারধান্যের মুষ্টি, বল্কলবসন, মগ্ন হয়ে আত্মমাঝে নিত্য আলোচন মহাতত্ত্বগুলি। পাষাণ পিঞ্জরে তব নাহি চাহি নিরাপদে রাজভোগ নব– চাই স্বাধীনতা, চাই পক্ষের বিস্তার, বক্ষে ফিরে পেতে চাই শক্তি আপনার, পরানে স্পর্শিতে চাই ছিঁড়িয়া বন্ধন অনন্ত এ জগতের হৃদয়স্পন্দন। ১৯ চৈত্র, ১৩০২ রবী ঠাকুরের এই কবিতার সাথে সবাই ই কম বেশি পরিচিত। পুরো কবিতা যদি আমরা কেউ কেউ নাও জেনে থাকি তবুও মাধ্যমিকে পড়েছেন আর কবিতার প্রথম লাইনটি দেখেননি বা...

viagra vs viagra plus

লাল ডাক্তার, হলুদ সাংবাদিক এবং…

ডাক্তার নামক প্রজাতির প্রতি আমার বিদ্বেষ খুব ছোটবেলা থেকে। ক্লাস টু’তে থাকতে যখন দাঁত তুলতে গিয়ে চেম্বারের ভেতর থেকে আরেক রোগীর তীব্র চিৎকার শুনছিলাম, তখনই এদের প্রতি প্রচণ্ড ভয় ঢুকে গিয়েছিল। বড় হয়ে যৌক্তিক মানসিকতা গড়ে ওঠার পর সেই বিদ্বেষ বা ভয় ভেঙ্গে যাবার কথা ছিল। দুর্ভাগ্যবশত তা হয় নি। ক্লাস ফোরে ওঠার পর চলে গিয়েছিলাম গ্রামে। সবচেয়ে কাছের হাসপাতাল ছিল নুরুল্যাগঞ্জ ইউনিয়ন হাসপাতাল। কিন্তু, কখনও সেখানে পা দেয়া হয়নি। কারণ, সপ্তাহে সেখানে ডাক্তার থাকতেন তিন দিন। তাও দু’ঘণ্টা। বাকি সময় জেলা শহরের ক্লিনিকে। সপ্তাহে এই তিন দু’গুণে ছয় ঘণ্টার মধ্যে একেক রোগীর জন্য ত্রিশ সেকন্ড বরাদ্দ করে “স্রেফ প্রেসকিপশন”...

সাবধানের মার নাই

অনেকে না সবাই হয়তো  ‘কঠিন প্রশিক্ষণ সহজ যুদ্ধ’  টাইপ  কোন উক্তি যেকোন সেনানিবাসের পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় দেখেছেন। আসলেই তাই প্রশিক্ষণ যত মজবুত হবে যুদ্ধ ততই সহজ মনে হবে। বাস্তব জীবনের সকল প্রকার যুদ্ধের ক্ষেত্রেই এই উক্তিটি যথার্থরূপে খাটবে তাই বাস্তব সম্মত। সম্প্রতি আমরা সকলই আহসানউল্লাহ ভার্সিটির ৬ জন ছাত্র সেন্টঃ মারটিনের উত্তাল সমুদ্রে প্রান হারানোর কথা জেনেছি। অনেক অনেক ধরণের কাদা ছুঁড়াছুঁড়ি ইতিমধ্যেই করে ফেলেছেন। মৃত্যু সাধারণত আমাকে অতটা বিচলিত করে না, কখনই করে নি। মানব সভ্যতার ইতিহাস সর্বত্রই রক্তিম লাল।  তবে খুব নিকটাত্মীয় বা আপন কেউ মারা গেলে একটু খারাপ আর সবার মতো আমারও লাগে এইটা স্বাভাবিকই বটে। কিন্তু যদি রানা প্লাজার মত হত্যাযজ্ঞ হয়...

মুক্তিযুদ্ধের দলিল-দস্তাবেজ সংরক্ষনের দাবী…

ক্ষমতার পালাবদল ঘটে, ঘটবেই। গনতান্ত্রিক রাজনীতিতে যে কোন দলই ক্ষমতায় আসতে পারে এবং সেটা স্বাভাবিক ও অবশ্যই সমর্থনযোগ্য। ভয়টা হল অন্য জায়গায়! যদি স্বাধীনতা বিরুধীরা আরেকবার জয়ী হতে পারে তবে এই ইতিহাস বিকৃতিকারীরা মুক্তিযুদ্ধের কোন ডকুমেন্টই তারা আর অবশিষ্ট রাখবে না। কেননা অতীতেও তারা এরকম করেছে। মুক্তিযুদ্ধের অনেক মুল্যবান আলামত ও দলিল-দস্তাবেজ তারা নষ্ট করেছে। মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর, বাংলা একাডেমি ও আদালতে বর্তমানে যে সব ডকুমেন্ট বা দলিল-দস্তাবেজ রয়েছে তাও পুরোপুরি সংরক্ষিত অবস্থায় নেই।যে কোন দুর্ঘটনা বা অগ্নি সংযোগে হারিয়ে যেতে পারে মুল্যবান দলিল সমুহ। সরকার ও এসব দলিল পত্র সংরক্ষনে এখন পর্যন্ত কার্যকরি কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেনি। কালের কন্ঠ পত্রিকার... venta de cialis en lima peru

para que sirve el amoxil pediatrico

আরেক পাগলাবাবার সাথে আমার পরিচয় হয় যেভাবে

কলেজ জীবনে চট্টগ্রাম কলেজে পড়তাম, প্রায়ই যেতাম পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে। দাপ্তরিক সেমিনারে গতমাসে চট্টগ্রাম গিয়ে বিকেলে প্লান করি পতেঙ্গা সৈকতে যাবো অনেকদিন পর। নদী আর সমুদ্রের প্রতি প্রচণ্ড টান আমার, মনে হয় তীরে দাঁড়ালেই বুড়ো সেন্টিয়াগোকে দেখতে পাবো হারপুন হাতে কিংবা নৌকোয় বাঁধা তিমিসহ। অনেক বছর যাবত আমার মননে সমুদ্র আর সেন্টিয়াগো গাঁথা কেন যেন ! সেন্টিয়াগো পুরুষ এবং আমি সমকামি না হয়েও, তার সাথে অনেক দিনের প্রেম আমার। ইহকাল ত্যাগ না করলে হয়তো দেখা করতাম এ পুরুষ প্রেমিকের সাথে তার বরফ ঢাকা ওক গাছের ভেঙে পড়া বাড়িতে গিয়ে! পড়ন্ত বিকেলে একাই প্রস্তুতি নিয়ে কাঠগড়ের পথে হাঁটছি পতেঙ্গার দিকে। একা...

রামকে শান্তিতে থাকতে দিলে রহিমও শান্তিতে থাকবে

বাংলাদেশে যারা ইসলামী রাষ্টে্র খোয়াব দেখে তারাও দেখছি ভারতে মোদী সরকার গঠনের আশংকায় জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন! যারা ইসলামী দলের প্রতি সহানুভূতিশীল, যারা বাংলাদেশে ধর্মনিপেক্ষতাকে রোজ একবার করে বলাৎকার করে তারাই ভারতে হিন্দু মৌলবাদীর ক্ষমতায় আহরণের সমূহ সম্ভাবনায় হা-হুতাস প্রকাশ করছে।মজার ব্যাপার হচ্ছে, ঠিক এই মুহূর্তে বাংলাদেশে আমরা সবাই সেক্যুলার! মোদী ক্ষমতায় আসলে ভারতের মুসলমানদের কি হবে চিন্তা করছে ইসলামী শাসন প্রিয় ও সেক্যুলারিজম বিরোধীরা।এরা তাহলে বুঝে একটা ধর্মভিত্তিক দল ক্ষমতায় এলে ভিন্ন ধর্মের মানুষের জন্য বিপদ হতে পারে? বা বিপদ না হলেও তাদের স্বার্থটা না দেখাও হতে পারে। সব মিলিয়ে ধর্মভিত্তিক মৌলবাদী দল যে গোটা দেশের মানুষের জন্য নয় সেটা...

শিরোনামহীন কিছু অগোছালো ব্যাখ্যা!!- প্রথম অনুচ্ছেদ

দেশান্তরী হওয়ার পর দেখতে দেখতে প্রায় ৩ টা বছর পার করে দিলাম। খুব উত্তেজনা নিয়ে ইতালি পাড়ি জমিয়েছিলাম। ভাল ভাল ইউনিভার্সিটির  বড় ডিগ্রি নিব,  বড় কোম্পানিতে চাকরী করবো, হাজার হাজার ইউরো ডলার উপার্জন করব, মনের মানুষটিকে একদিন বিয়ে করে ঘর সংসারী হয়ে যাব। এক কথায় সিম্পেল লাইফ প্লান। কিন্তু আসলে সবার পেটে সব কিছু সহ্য হয় না, তেমনি সবার জন্য বিদেশের জীবন যাপন নয়। কেননা আজ দুই বছরে আমার আসে পাসের এতো বন্ধু বান্ধব, মামা, চাচা, ভাই বোন এর ভিতর একজন বাদে অন্য কাউকে পাইনি যে বা যারা আমাকে একটি বারের জন্য হলেও বলেছে যে পড়াশুনা শেষ করে দেশে কিছু...

achat viagra cialis france
doctus viagra