Category: দর্শন

সংবাদ ভ্যাট সম্পর্কিত কিন্তু সমস্যার অন্তরালে শুধুই অজ্ঞতা ও অবহেলা!!

বেশ কয়েকদিন যাবৎ বাংলাদেশে একটি ইস্যু নিয়ে অনেক কানাঘুষো চলছিলো। কেউ অন্য রকম তীব্র যন্ত্রণা থেকে বলছিল আর কেউ বলতে হয় তাই বলছিল। কিন্তু সকল কানাঘুষোর চূড়ান্ত দুই দিন আগেই দেশের মানুষ দেখেছে। দেশের সকল নিউজপেপারের প্রধান শিরোনাম ঠিক তেমনটারই ইঙ্গিত দেয়। “বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আরোপিত ৭.৫ % ভ্যাট বন্ধের দাবিতে ইস্টওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির আন্দোলনে পুলিশের গুলি, আহত আন্দোলনরত একজন শিক্ষক”! এই ধরনের শিরোনাম গতকাল মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়েছিল দেশের সকল সংবাদমাধ্যম, টেলিভিশন চ্যানেল বা ফেসবুকের মত সামাজিক মাধ্যমে। এরই রেশ ধরে এই কয়দিন শিরোনাম “বিক্ষোভে অচল ঢাকায় চরম ভোগান্তি”। এই শিরনামগুলোকে কেবলই তথাকথিত সংবাদ ভাবলে ভুল হবে। সংবাদের গভীরে যাবার আগে একটু...

অর্থনৈতিক মুক্তি ও নারী স্বাধীনতা

পরিবর্তন পোস্টটায় বেশ কিছু সমালোচনার মুখোমুখি হতে হয়েছিল। বিশেষ করে অর্থনৈতিক মুক্তির বিষয়টি উল্লেখ না করায় বেশি সমালোচিত হয়েছিলাম। তাতক্ষনিক উত্তর দেবার ইচ্ছা থাকলেও যথেষ্ট সময় না পাওয়ায় প্রতিউত্তর দেয়া হয়নি। তাই আন্তরিকভাবে দুঃখিত। সময় করে আজ বসেছি সেসব সমালোচনার উত্তর দিতে। মার্ক্সের একটি বহুল প্রচলিত উক্তি- Economy determines everything.  তবে এটি মনে হয় আমাদের জন্য প্রযোজ্য।  মানবসভ্যতার ইতিহাসে prehistoric, ancient, slave social constitution পর্যন্ত অর্থের আবির্ভাব ঘটেনি। অর্থের প্রচলন ও প্রয়োজন প্রথম দেখা যায় feudal social constitution-এ এবং এর পরবর্তী সময় থেকে এখন পর্যন্ত বিভিন্নভাবে অর্থের ব্যবহার চলে আসছে। বর্তমানে ব্যবস্থা এমন যে, money is the one and only...

নৈতিকতার ইতিকথা

নৈতিকতা হচ্ছে মানব দর্শনের অন্যতম শক্তিশালী এবং অবিচ্ছেদ্য একটি অংশ। আর নৈতিকতা বা নীতিশাস্ত্র মানুষের দৈনন্দিন জীবনের ব্যবহারিক এবং প্রায়োগিক দিক থেকে ক্রম বিকাশমান। ভাল মন্দের মত নীতিশাস্ত্রও সময়, কাল এবং স্থানের সাথে আপেক্ষিক অর্থাৎ পরিবর্তনশীল। তারপরও কিছু মৌলিক নৈতিকতা মানব সভ্যতার ঊষালগ্ন থেকে অতি সবল এবং প্রবলভাবে বিকশিত হয়ে এসেছে। যেমন পোশাক,  খাদ্যাভ্যাস এবং শিল্পকলাসহ জীবনযাপনের মূল বিষয়গুলো। প্রায়োগিক এবং তাত্ত্বিক দিক বিবেচনায় নীতিশাস্ত্রকে দুইভাগে ভাগ করা যায় তা হল ‘ভাল’ এবং ‘মন্দ’। ক্রমাগত মানুষের ভাল-মন্দের ধারণা প্রস্ফুটিত হতে থাকলে তাত্ত্বিক নীতিশাস্ত্রও তার কাঠামোগত রূপ পেতে থাকে। মূলত সামাজিকভাবে দলবদ্ধ সমাজ গড়ে উঠা শুরু করলেই গোষ্ঠীবদ্ধ মানুষের সম্পর্ক অত্যাবশ্যক...

“ধর্মীয় মৌলবাদ একটি মানসিক ব্যাধি” এবং অভিজিৎ রায়ের “বিশ্বাসের ভাইরাস”

“বিশ্বাস নির্ভর সমাজে ধর্মের প্রভাব ব্যাপক। আমাদের পরিচিতি, রীতিনীতি, বিয়েসহ তাবৎ সামাজিক উৎসবে আমরা ধর্মের অস্তিত্ব খোঁজে পাই। কিন্তু আমরা ক’জনে জানি যে, ধর্মের বিস্তার আর টিকে থাকার ব্যাপারগুলো ভাইরাসের মত করে অনেকটা।” – অভিজিৎ রায় (বিশ্বাসের ভাইরাস) রাজীব হায়দার শোভন’কে উৎসর্গিত ২০১৪ সালে প্রকাশিত সদ্য প্রয়াত বিজ্ঞান লিখকও, গবেষক এবং প্রকৌশলী ডঃ অভিজিৎ রায়ের ‘বিশ্বাসের ভাইরাস’ বইয়ের কিছু অংশ এটি। এই বইয়ে আটটি অধ্যায় আছে। অধ্যায় গুলো নিম্নরূপঃ প্রথম অধ্যায়ঃ একজন নাফিস এবং বিশ্বাসের ভাইরাস দ্বিতীয় অধ্যায়ঃ বিশ্বাসের ভাইরাসঃ থাবা বাবার রক্তবীজ তৃতীয় অধ্যায়ঃ ব্লগার গ্রেফতারঃ ভাইরাসাক্রান্ত বাংলাদেশ চতুর্থ অধ্যায়ঃ ধর্ম কেন ভাইরাসের সমতুল্য পঞ্চম অধ্যায়ঃ ধর্ম কি সত্যিই...

ইশ্বরিক বিবর্তনঃ কেতাবী থেকে পৌরানিক

আহলে কিতাব। এরা এমন একটি গোষ্ঠী যাদের নির্দিস্ট একটি করে ধর্মগ্রন্থ রয়েছে। এই আহলে কিতাবদের ভেতরে টিকে আছে ইহুদী, খৃষ্টান আর মুসলিমরা। এদের সবার মোটামোটি কমন আর সাধারণ বৈশিষ্ট রয়েছে, এরা সকলেই নিরাকার এক ইশ্বরে বিশ্বাস করে। তবে খৃষ্টানরা এই ক্ষেত্রে খানিক ব্যাতিক্রম। তাঁদের পূজ্য যীশু নিরাকার নন। আর তিনি পূর্ন ঈশ্বরও নন আসলে। তিনি ইশ্বর পুত্র। আর ইশ্বর অনেকটা হিন্দু ধর্মের পরম ব্রম্মের মতন। আর তিনিও অতি অবশ্যই নিরাকার নন। কিন্তু ………………  হ্যাঁ একটা কিন্তু থেকে যাচ্ছে। আসুন সেই কিন্তুর অর্থ খোজার চেষ্টা করি।  ওল্ড টেস্টামেন্ট। ওল্ড টেস্টামেন্ট হলো বাইবেলের পুরোনো অংশ। গ্যাব্রিয়েল বা জিব্রাইল কর্তৃক নিয়ে আসা ধর্মগ্রন্থ...

একটি নিষ্পাপ প্রাণের মৃত্যু(জিয়াদ)

জিয়াদ। মৃত এই ছেলেটা ২ দিনেই সকলের মনে যায়গা করে নিয়েছে। কিন্তু কোল ফাকা হয়েছে একজন মায়ের। তার এই মৃত্যুর দায়ভার কার? জানি কেও নিতে চাইবে না। শিশু জিয়াদ ৬০০ ফুট নিচে ছিল না, সম্ভবত সে নিচে সাবমারসিবল পাম্পের সাথে আটকে ছিল, কিন্ত যখন এটি তুলে ফেলা হয় সে নিচে পানিতে পড়ে যায়। সাবমারসিবল পাম্প থাকে মূলত পানির নিচে, কিন্ত ঐ স্থানে পানির লেয়ার আরো নিচে চলে গেছিল, পরিত্যাক্ত ঐ পাম্পটি ছিল পানির লেয়ারের অনেক উপরে, জিয়াদ খুব সম্ভবত ঐ পাম্পের সাথেই আটকে ছিল, কিন্ত যখন ঐ ছোট পাইপটি তুলে ফেলা হয় তখন সে ঐ জায়গা থেকে পড়ে যায় সাবমারসিবল... achat viagra cialis france

ছেমা

আরবীতে ছেমা বলে বাংলা ভাষায় গান, তাহার অবস্থা কিছু শোন মুসলমান। গান বাজনার আদবের কথা শোন বেরাদর, লাখে লাখে লোকে করে তাহার কদর। কেন কদর করে লোকে দেখনা ভাবিয়া, সকলেই পছন্দ করে ভাবিয়া চিন্তিয়া। যে জানে না কিছু সেও গান গায়, দুই এক পদ গাইলে তবে মনে শান্তি পায়। বোবা লোক দেখলে ভাইরে আন্দাজ করিবায়, মাত কথা জানে না ভাই সেও কুন কুনায়। অবোধ শিশু যারা মায়ের দুধ খায়, কেউ যদি কারণবশত ঐ শিশুরে কান্দায়। ঘুমাওরে ঘুমাওরে বলে যদি গান গায়, শিশুর গায়ে থাপ্পড় দিয়া হাতে তাল বাজায়। গানে আর তালে শিশু ঘুমাইয়া যায়। নদী যদি শুকাই যায় নৌকা ঠেকে... about cialis tablets

doctus viagra
tome cytotec y solo sangro cuando orino

ঈশ্বরের অস্তিত্ব অস্বীকার করা এই দেশে অপরাধ দুর্নীতি কখনো নয়

ঘটনা সংক্ষেপঃ সাবেক মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী এমপির বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ তদন্ত করে দেখা হবে বলছে সরকার। বিশেষ করে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্বে থাকাবস্থায় সরকারের মূল্যবান সম্পত্তি বিনা টেন্ডারে বিক্রি, হস্তান্তর ও ইজারা দেওয়ার অভিযোগগুলো সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হবে। ইতিমধ্যে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় থেকে লতিফ সিদ্দিকীর সব অনিয়ম-দুর্নীতির নানা তথ্য-উপাত্ত দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কাছে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে। অথচ এই সেদিনও সরকারের পক্ষে টিভি টকশোগুলোর অন্যতম সরভ কণ্ঠস্বরের মধ্যে অন্যতম ছিলেন। তাহলে কেন আজ তিনি বিরাগভাজন? কারণ কারো অজানা নয় তাও তার সেই বিখ্যাত বক্তব্যটি একটু দেখি;  ‘আমি কিন্তু হজ আর তাবলিগ...

কোনো বেধর্মী যেন তৃতীয় পক্ষ হতে না পারে !!

চট্রগ্রামে গিয়ে প্রথম নামলাম জি.ই.সি’র মোড়ে । জীবনে প্রথমবার চট্রগ্রামে পা রাখলাম । উদ্দেশ্য ছিল চাকরীর ইন্টারভিউ । ভোর ৫.৩০ এ গিয়ে যখন নামি, তখন সেখানে মাত্র ১টা চায়ের টং খোলা ছিল আর চারপাশটা ছিল বেশ নিরব । ভোরের সূর্য কেবল উঠি উঠি করছে তখন । নাইট কোচে ভালো ঘুম হলনা বলে পরপর দুই কাপ কড়া লিকারের চা পান করে নিলাম। প্রথম সিগারেটটা ধরিয়েছি সবেমাত্র, তখন ৫.৪৫ এর মতন বাজে । সিগারেট ফুঁকছি, এর মাঝে হঠাৎ করে খেয়াল করলাম আমার অদূরেই কয়েকজন বোরকা-পরিহিত মহিলারা এসে দাঁড়ালো । এই সাত সকালেই বোরকা পড়া দেখে কিছুটা বিস্মিত হলাম । তবে কিছুক্ষন যাবার...

acquistare viagra in internet

ক্যাওস অফ সুপিরিয়রিটি

ছাত্রলীগের মহাসমাবেশ দেখছিলাম। এত বড় একটা সমাবেশ, বিশৃঙ্খলা একটু হবেই। বিরিয়ানি খাওয়া লীগারদের জন্যে ঝামেলাটা আরো বেশি। যারা মনে প্রাণে ছাত্রলীগ করে, তাদের প্রচেষ্টাটা ম্লান হয়ে যায়। শিক্ষা চত্বরে ঢাকার বাইরে থেকে আসা কয়েকজনের হৈ হুল্লোরে একটা গাড়ির কাঁচ ভেঙে যায়। তারা সরি বললেও ব্যাপারটা আমাকে অন্যদিকে চিন্তিত করে। এমনিতে ছাত্রলীগের ছেলেরা যথেষ্ট ভদ্র, অন্তত হেফাজতের তুলনায়। আমি আর মেঘ হেটে আসছিলাম যখন, সরে গিয়ে তারা জায়গা করে দিয়েছে, ব্যাপারটা ভালো লেগেছে। কিন্তু আমার মাথায় আটকে গেছে ঐ ভাঙা কাঁচ। চিন্তাটা সামগ্রিক, এর সাথে ছাত্রলীগের কোনো সম্পর্ক নাই। বয়েজ স্কুলে পড়েছি, বিভিন্ন কাজে বা প্রতিযোগিতায় গার্লস স্কুলে যেতাম। একটা লক্ষ্য থাকতো, কিছু...

ovulate twice on clomid

মুক্তিযুদ্ধ, চীনাবাম ও বঙ্গবন্ধু

মুক্তিযুদ্ধে বামদের ভূমিকা নিয়ে পক্ষে বিপক্ষে বেশ বিতর্ক আছে। ঐ সময় বামেরা অনেক দল ও উপদলে বিভক্ত ছিল। এমনকি চীনপন্থীদের মধ্যেও মাওপন্থী, নকশালপন্থী, হকপন্থী, তোহাপন্থী, সর্বহারা (সিরাজ শিকদারের সন্ত্রাসী গ্রুপ) সহ অসংখ্য দল, উপদল ও গ্রুপ ছিল । ৭১ এ যুদ্ধাকালীন সময়ে তাদের বেশির ভাগেরই অবস্থান ছিল মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষে। মূলতঃ ষাটের দশকে চীন-রাশিয়া মেরু করণের সময়ে মওলানা ভাসানীকে কেন্দ্র করেই চীনাপন্থীরা একত্রিত হয়। আবার চীন-পাকিস্তান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক থাকায় আইয়ুব বিরোধী আন্দোলনে ভাসানী সক্রিয় হতে পারেন নি। অন্য দিকে আওয়ামী লীগের সঙ্গে রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব বাড়তে থাকায় চীনাপন্থীরা কখনোই আওয়ামী লীগকে আস্থায় নিতে পারে নি। এই আস্থাহীনতাই ৭০ এর পরে আওয়ামীলীগ ও...

১৬ই আগস্ট হোক জাতীয় শোক দিবস ।

বেগম জিয়ার জন্মদিন নিয়ে হাজার হাজার ব্লগপোষ্ট, কলাম, সম্পাদকীয়, ফেসবুক পোষ্ট লিখা হয়েছে । ঐ দিন জন্মদিন কিনা তা নিয়ে পক্ষে বিপক্ষে অনেক যুক্তি তর্ক সহ আলোচনাও হয়েছে । মেজরিটি লেখক ও আলোচক প্রমাণ করেছেন ঐ দিন বেগম জিয়ার জন্মদিন নয়। এদের মধ্যে অনেকেই শেষপর্যন্ত আবার এও বলতে বাধ্য হয়েছেন যে, ঐদিন সত্যিকার অর্থে কারো জন্মদিন হলেও তা উৎসব করে পালন শোভনীয় নয় । কেননা ঐদিন জাতির জনককে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়েছে এবং বাংলার ইতিহাসে এদিন একটা শোকের দিন হিসেবে স্বীকৃত। তাছাড়া ১৫ই আগস্টকে জাতীয় শোক দিবস হিসাবেও ইতিমধ্যে ঘোষণা করা হইয়াছে । কিন্তু কে শুনে কার কথা! মানুষ হলে...

সব কথার পিঠেই উনার তর্ক আছে

সাধারন মানুষের বিশ্বাসই সবচাইতে মারাত্মক মরণাস্ত্র । তারা কোন সাত-পাঁচ না ভেবেই বিশ্বাসের জোরে যে কোন জায়গায় খুঁটি গেড়ে বসতে পারে । যুক্তির তোড় তাদের কাছে কোন মর্মার্থ বহন করে না । দিন আনি – দিন খাই টাইপের মানুষের এত সময় কই, সাত-পাঁচ ভাববার ? যেখানে যা কিছুই হোক না কেন, দিন শেষে নিজের পেটে ভাত জুটলেই তো হল ! এই ভাত জুটাবার জন্য কলুর বলদের মতন খাটতে সবাই রাজি । সে কোটিপতিই হোন না কেন, কিংবা রিক্সাচালকই হোন না কেন ? ঘরে বসে বসে কেউ সারাজীবন উদরপুর্তি করেছে, এমনটা প্রমাণ কখনোই দেখা যায় নি । এমনকি অনলাইনে আয় বলতে...

হাংরি আন্দোলন — এক অভূতপূর্ব দ্রোহের বিস্ফোরণ (পর্ব -২) কৃত্তিবাস ও কল্লোলের সাথে মিলিয়ে ফেলবার অপচেষ্টা…

    পঞ্চাশের দশকের ইউরোপের সংঘটিত কিছু টাইমস্পেসিফিক বা তৎকালীন সময় কেন্দ্রিক কিছু শিল্প-সাহিত্য আন্দোলনের আদলে বাঙলা সাহিত্যেও এক বিপ্লবের চেষ্টা চলেছিল। অনেকেই সেই আন্দোলনের চেষ্টার সাথে হাংরি আন্দোলনকে মিলিয়ে ফেলবার চেষ্টা করেন।আসলে কল্লোল বা কৃত্তিবাস গোষ্ঠীর তৎকালীন আন্দোলন ছিল বড়ই সাজানো -গোছানো যুক্তিগ্রন্থনা নির্ভর নিটোল বাস্তবতায় ভরা অদ্ভুতুড়ে এক পরিহাস(যেখানে সাহিত্যিকগন নতুনভাবে নতুনচিন্তায় নবআবিস্কারে মাতার বদলে আন্দোলন আন্দোলন বলে চেঁচিয়ে আবার নিজের চেনাজানা জগতের খোলসের মাঝে ঢুকে যেতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করতেন), অতএব ইউরোপীয় উপনিবেশিকতার চৌহদ্দিতে গড়ে ওঠা সে আন্দোলন বাঙলা সাহিত্যে নতুন ধারা সৃষ্টি তো দূরে থাক,ন্যূনতম বিদ্রোহের আমেজও সৃষ্টি করতে পারেনি। যার অবধারিত ফলফলে এক সময়ের বিপুল... all possible side effects of prednisone

private dermatologist london accutane

আত্মকামী ও জীবনদর্শন…

জন্ম থেকেই আমি পরীক্ষার্থী। ব্যাধি, শিশুমনে অবান্তর ভাবনা, আরেকটু বড় হওয়ার পর আরেকটু বড়সড় সংকট, যৌবনে সম্পর্কের টানাপোড়েন আরো শত শত পরিক্ষার ভেতর দিয়ে আমাকে যেতে হয়েছে। আর কিছু হোক না হোক প্রচন্ড আত্মপ্রেমী হয়ে বেড়ে উঠেছি আমি, নিজের পাশে নিজেই দাঁড়িয়েছি সুখে দুঃখে সবসময়। এভাবে আত্মকাম আত্মপ্রেমে মগ্ন হয়ে একটা সময় আবিষ্কার করেছিলাম অন্যের প্রতি আমার কোন আবেগ নেই, স্বার্থপর আর অহংকারী হিসেবে পরিচিতি পেয়েছিলাম। তারপর জানিনা কিভাবে যেনো ভালোবাসতে শিখে গেলাম, প্রতিটা মানুষের জন্য ভালোবাসা। মিশে গেলাম। একে একে অনেক কিছুই জীবনে এলো, প্রেম, প্রেরনা, যৌনতা। অন্য একটি শরীর ছুঁয়ে ফিরে এসে আয়নার সামনে দাঁড়ানো মানুষটাকে বলেছি, এই... side effects of quitting prednisone cold turkey

“ধর্ম !!! শুধুই কি স্বার্থ রক্ষার ঢাল !!??”

যেকোনো ক্ষেত্রে ধর্মকে ব্যবহার করা এক কথায় বলতে গেলে “ধর্ম ব্যবসা” এখন আর আমাদের দেশে কিংবা সমাজে নতুন কিছু নয়। রাজনীতি, সমাজনীতি, নিজ নিজ জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি করা থেকে খেলার মাঠে পর্যন্ত ধর্মকে ব্যবহার করা হয় নিলজ্জভাবে।একদিন কিংবা দুদিনেই আমাদের সমাজে ধর্মকে এভাবে ব্যবহার করার প্রবণতা শুরু হয়নি। অনেকটা বিষাক্ত ভাইরাসের মত করেই আমাদের সমাকে অত্যন্ত কৌশলের সাথে ঢুকিয়ে দেয়া হয়েছে এই ধর্মের অপব্যবহারকে। আমাদের দেশের জন্মের ইতিহাস থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত একটু একটু করে ধর্মের অপব্যহারকে মানুষের রক্তে ঢুকিয়ে দেয়া হয়েছে। যার কারণে খেলার মাঠের ইস্যু হোক কিংবা হোক কোন জাতীয় ইস্যু সব ক্ষেত্রেই ধর্মকে ব্যাবহার করা হয় প্রধান...

will metformin help me lose weight fast
walgreens pharmacy technician application online

জর্জ অরওয়েল

Who controls the past controls the future, who controls the present controls the past.’-George Orwell ‘1984’ (1949) জর্জ অরওয়েল ছিলেন একজন বৃটিশ সাংবাদিক এবং লেখক যিনি বিংশ শতাব্দীর দুইটি বিখ্যাত বই “এনিম্যাল ফার্ম ” এবং ” নাইন্টিন এইট্টিফোর ” এর জন্য বিখ্যাত। ২০০৮ সালে টাইমস সাময়িকীর শ্রেষ্ঠ ৫০ জন লেখকের তালিকায় দ্বিতীয় স্থান লাভ করেন। কালোত্তীর্ণ ইংরেজ সাহিত্যিক জর্জ অরওয়েল ১৯০৩ সালের ২৫ জুন বিহারের মতিহারে জন্মগ্রহণ করেন। জর্জ অরওয়েল মূল নাম এরিক আর্থার ব্লেয়ার। অরওয়েলের বাবা রিচার্ড ওয়ামেসলি ব্লেয়ার ইন্ডিয়ান সিভিল সার্ভিসের আফিম বিভাগে কর্মরত ছিলেন। ১৯০৪ সালে অরওয়েল মায়ের সঙ্গে ইংল্যান্ডের হেনলি অন টেমসে চলে আসেন। অতঃপর ১৯১২...

ভেঙ্গে পড়ছে মেকী সকল মানবিক সংঘ-পরিষদ

ঘটনা-একঃ  (সমাজ) ঘটনার সূত্রপাত ৩০ মার্চ, ২০১৪। চট্টগ্রাম কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহের জন্য রাহী ও উল্লাস কলেজে যাচ্ছিল বেলা এগারোটার দিকে, তখন স্বাধীনতাবিরোধী রাজনৈতিক দল ও যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত জামায়াতে ইসলামীর ছাত্রসংঘ ইসলামী ছাত্র শিবিরের পঞ্চাশ থেকে ষাটজন ক্যাডার তাদের উপর হামলা চালায়। অবশ্যই ধর্মানুভূতির জুজু পুঁজি করে। ঘটনা-দুইঃ  (শিক্ষা)   গত ৩ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া এইচএসসির  তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা শেষ হওয়ার কথা ছিল ৫ জুন। তবে স্থগিত ইংরেজি দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা গত ৮ জুন নেয়া হয় । এখানের শেষ নয় শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য যেখানে মূল্যবোধের সৃষ্টি এবং মানব সভ্যতার অগ্রযাত্রার ক্রমান্বয় ঠিক রাখা মাঝে মাঝে সেখানেও তীব্র... can levitra and viagra be taken together

can you tan after accutane

ময়দা নিয়ে কিছু বিখ্যাত মনিষীর থেউরি।

বিশেষ সেই সূত্রগুলো নিম্নে দেয়া হলঃ  \m/ ১.নিউটন, “ময়দা সুন্দরীর সৌন্দর্য তার মুখে মাখায়িত ময়দার সামানুপাতে পরিবর্তিত হয়।” ২.পিথাগোরাস, “ময়দা সুন্দরীর দুই গালে মাখায়িত ময়দার ওজনের বর্গফল একটি বৃহত্তর ময়দার বস্তার ওজনের বর্গফলের সমান।” ৩.রামফোর্ড, “ময়দা হচ্ছে ময়দা সুন্দরীর বাহ্যিক অবস্থা যা ঐ সুন্দরীর প্রতি কোন সচেতন ছেলের আগ্রহ ব্যাস্তানুপাতে এবং অচেতন ছেলের আগ্রহ সামানুপাতে পরিবর্তন করে।” ৪.হাইগেন, “ময়দা এমন একটি পদার্থ যা ময়দা সুন্দরীর সৌন্দর্যের জন্য অপরিহার্য এবং যার স্থিতিস্থাপকতা কম কিন্তু ঘনত্ব খুবই বেশী।” ৫.ফ্যারাডে, “ময়দা বিশ্লেষনের মাধ্যমে কোন কালো চামড়ার উপর ময়দার প্রলেপ সৃষ্টি করাকে ময়দাপ্লেটিং বলে। “ thuoc viagra cho nam

অনাব্যক্ত প্রেম

:এক টাকা হবে প্লিজ? :কি? :নাভিনা,দশ টাকা ফ্লেক্সি দেয়না। তাই একটাকা বেশি দিতে হয়। :আমাকে দেখে কি হাতেম তাই মনে হয়? :জ্বীনা,একটাকা দিতে হাতেমতাই হওয়া লাগেনা। :এই নেও ফকির,আর কখনো কল দেবেনা।আমি ফকিরের সাথে কথা বলবনা। (রাত ১০ টা) : হ্যালো,নাভিনা! :নাভিনা মারা গেছে। :হ্যাঁ জানিতো।চল্লিশার খবর নিতে ফোন দিলাম। :শয়তান,সারাদিন ফোন দেওনাই কেন? :বলছিলানা,ফকিরেরে সাথে কথা বলবানা,তাই ফোন দেইনি। :তো এখন বুঝি বড়লোক হয়ে গেছ? :ফোন দিয়ে কথা বলার মতো বড়লোক হইছি। :মানে কি ? :সন্ধায় টিউশনির টাকাটা পাইলাম,তাই ফোন দিলাম। :তো বল,কি বলবা? :বলবনা,ঐ যে ঐদিন কি বলতে চাইলা যে। : কিছুনা। :ধুর মেয়ে বলতো! :এত ভাব নিয়ে...

accutane prices
cialis new c 100
zithromax azithromycin 250 mg