”মরীচিকা তুমি!”

            মরীচিকা তুমি?আবেগদগ্ধ বায়ুর স্রোতে , ও কে তেজস্বিনী? রক্তিম সূর্যের বিদায়ক্ষণে দেখেছিলাম তারে, এলোমেলো চুলে দাড়িয়ে ছিল ঐ দিগন্তে, সফেদ ওড়নায় কি যেন লাল রঙা এক আভা, ছুটেছিলাম, উত্তরে, দিগন্তে, নাহ! পথ বিভ্রমে ! পশ্চিমে ছুটি, কখনো দক্ষিনে দেখি! সফেদ ওড়না রক্তিম হয়ে যায়, সহসা ক্রন্দনে,দিগন্তে, আমি হাত বাড়িয়ে খুজি সদ্য আগত অন্ধকারে।                   মরীচিকা তুমি? নাকি দিগন্তে মোড়া কল্পনা বৈ-কি! নক্ষত্ররা আজ ঘুমিয়ে গেছে,মিহি চাদের আলো! আমি গন্ধ শুকি তার, সেই মোহিনী অমানিশারসেই সফেদ ওড়নার এলোমেলো চুলের অধিকারিণীকে, আমি আবেগ খুজি কামের গন্ধে; ভালোবাসার রংতুলিতে!...