Author: সাধু ফ্রাঙ্কেনস্তাইন

will i gain or lose weight on zoloft

ভীনগ্রহের দানব এবং একটি পরিবারের গল্প

কথা বললে কিংবা কোনো শব্দ করলেই ভীনগ্রহের কিছু অন্ধ দানব সেই শব্দ অনুসরণ করে আসবে এবং সব লণ্ডভণ্ড করে ফেলবে । বাঁচতে হলে বলা যাবে না কোনো কথা , করা যাবে না কোনো শব্দ । যোগাযোগের জন্য শুধুমাত্র ইশারা আর সাংকেতিক ভাষার আশ্রয় নিতে হবে । এভাবেই বিলীন হয়ে গেছে পৃথিবীর প্রায় সব প্রাণী , টিকে আছে শুধু একটি পরিবার যেখানে মা এভলিন একজন ডাক্তার এবং বাবা লি একজন প্রকৌশলী । সেই পরিবারের বড় মেয়ে রেগান মূকবধির । এজন্য উদ্ভুত সমস্যার গুরুত্ব বুঝতে পারে না সে । সেকারণেই শহর ছেড়ে যাবার পথে ছোট্ট একটি ভুলে দানবের হাতে প্রাণ দিতে হয়...

সানজুঃ এক পাপীর জাস্টিফিকেশন

বলিউডের অটোবায়োগ্রাফি সিনেমাগুলোর মধ্যে একটি রীতি চলে এসেছে , যেটি হলো ‘জাস্টিফিকেশন’ । সমালোচিত যেকোনো মানুষকে নিয়ে সিনেমা বানানো হবে আর সেই সিনেমায় মানুষটিকে অনেকাংশেই পুতঃপবিত্র হিসেবে প্রমাণের চেষ্টা করা হবে । ইমরান হাশমি অভিনীত আযহারের পর সানজুও তেমন একটি জাস্টিফিকেশন । পুরো সিনেমাজুড়ে সঞ্জয় দত্তকে একজন ভালো ব্যক্তি এবং পরিস্থিতির শিকার একজন অসহায় মানুষ হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে । সঙ্গদোষে মাদক সেবন আর তিনশ’র অধিক নারীর সাথে রাত কাটানো ছাড়া আর কোনো অপরাধেই তাকে দোষী বলা যাবে না । এক মহৎ কারণে সাথে একে-৫৬ রাইফেল রাখা , নিজেকে বাঁচাতে আন্ডারওয়ার্ল্ডের ডনের সাথে বন্ধুত্ব , জেল না খাটার প্রস্তাব পেয়েও... zoloft birth defects 2013

zithromax azithromycin 250 mg

সবটুকু সুখ

মেয়ে , তুমি আজ বিকেলের ম্লান আলোকিত সূর্যটা দেখেছো ? বুঝেছিলে ওটা তখন তোমাকে কী বলেছিলো ? দিনের সবটা আলো তোমায় দিয়ে সে হয়েছে ক্লান্ত , পরিশ্রান্ত তবুও শে তোমার রাতকে আলোকিত করতে দায়িত্ব দিয়েছে চাঁদটাকে , কালো রাতটায় যাতে তুমি ভয় না পাও , তাই জোছনা তোমার শরীর ছুঁয়েছে স্নান করেছ তুমি নরম আলোতে , হয়েছো স্নিগ্ধ । কিন্তু তুমি কি বুঝতে পেরেছো ওরা কেনো তোমার যত্ন নিচ্ছে ? কারণ আমি ওদের বলে দিয়েছি , তুমি যেন ভালো থাকো সবসময় । আমার রৌদ্রজ্জ্বল দিন আজ মেঘে ঢাকা জোছনায় আলোকিত রাত এখন অমানিশায় আঁধার , তবুও তোমাকে কোনো দুঃখ ছুঁতে...

kamagra pastillas

কৃষ্ণচূড়া

ফাহিম , একটি বিখ্যাত দৈনিক পত্রিকার সাহিত্য সাময়িকীর সম্পাদক । অনেক নামকরা লেখকের গল্প, কবিতা ওর হাত দিয়ে প্রকাশিত হয় । তাছাড়া ফাহিম নিজেও মাঝেমাঝে গল্প লেখে । সেগুলোও বেশ জনপ্রিয় পাঠকমহলে । ওর ভক্তের সংখ্যাও নিতান্ত কম নয় । ফাহিম কিছুটা অহংকারী, মানুষের সাথে আলাদা ফর্মালিটি রেখে কথা বলে । কাউকে অপছন্দ হলে তাকে অপমান করতেও ছাড়ে না । সুস্মি , একটি সাধারণ মেয়ে । প্রেমের গল্প লিখতে ভালোবাসে । প্রেম, ভালোবাসা ইত্যাদি নিয়ে ওর অনেক আগ্রহ । ভবিষ্যতে অনেক বড় লেখক হবার স্বপ্ন দেখে সুস্মি । স্বভাবের দিক থেকে একদমই নরম, কারো সাথে উঁচু গলায় কথা পর্যন্ত বলে...

about cialis tablets

স্বপ্নের কিছু অংশ

ইচ্ছে হলো সবার সাথে আমার বানানো স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রগুলো শেয়ার করতে । সময় হলে দেখতে পারেন । ১। ক্যানভাসঃ  ২। অ্যান আনরিভিল্ড স্কেচঃ  ৩। এপার-ওপারঃ  ৪। প্রকৃতি (এটা আমার প্রযোজিত) ঃ  ৫। কন্টেম্নোঃ  ৬। বিপ্রতীপঃ    ভবিষ্যতে একজন চলচ্চিত্রকার হতে চাই । স্বপ্ন দেখি বাংলাদেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে ভালো কিছু উপহার দেবার । তারই উদ্দেশ্যে এতটুক ক্ষুদ্র চেষ্টা । সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন । স্বপ্নের লিঙ্কঃ https://www.youtube.com/odhisroy সাথে থাকবেন আশা করি ।

মনে রেখো

যদি ভুলে যাও নাহয় আমাকে মনে রেখো আমার ভালোবাসা , যা ছিলো একমাত্র তোমারই জন্য সঙ্গী হোক স্মৃতিগুলো তোমার জীবনে । কবিতাগুলো লিখেছি তোমায় ভেবে স্বপ্নজুড়ে হেঁটে বেড়িয়েছো তুমি , আর অবাক হয়ে তাকিয়ে দেখেছি তোমার হাসি তৃপ্ত দুচোখ মেলে । বৃষ্টিভেজা সন্ধ্যাবেলা তোমার অপেক্ষায় অশ্রুর সাগরে ভেসে কেটেছে সময় , এই তোমাকে হন্যে হয়ে খুঁজেছি মনের অলিগলি , অদূর সীমানায় । ক্লান্ত এ মন ভেঙেছে কঠিন আঘাতে কিন্তু দেয়নি তোমাকে হারাতে কখনো , ভালোবাসার গভীর আবেশে ছুঁয়েছে অধরা সবকিছু ভুলেও শুধু তোমাকে চেয়েছে । ভুলে যেতে পারো তুমি , যেতেই পারো মনে রেখো আমার এই আকুলতা , তোমার জন্য...

all possible side effects of prednisone

সামাজিকতার মুখোশ

নেমেছে আঁধার পৃথিবীর বুকে , শুনশান নীরবতা প্রদীপ জ্বালায় মিটমিটিয়ে নিশাদলের ধারা , একটুদূরেই জ্বলছে ওই ল্যাম্পপোস্টের আলো এরই মাঝে একা পথে একলা লাগে ভালো । একা আমি শূণ্য হাতে , ভবিষ্যতের পথে কী আর হবে এসবকিছু মনের মাঝে পুষে ? তোমার সবাই ঠাট্টা করো , হয়তো পাগল ভাবো , মনে রাখলে বাড়বে ব্যাথা , অভিমান হবে আরো । সামাজিকতার প্যাঁচে পড়ে হয়েছি জর্জরিত , হিসেব কষে শেষ করেছি জীবনের সব অঙ্ক । তারচেয়ে বরং পথচলা হোক জগত্সংসার ছেড়ে বাড়িযেছি পথ সামাজিকতার অনেকখানি দূরে , তোমরা সবাই সামাজিক জীব , থেকো অনেক ভালো মুখোশ কারো পড়বে না খসে , ভালো... tome cytotec y solo sangro cuando orino

ক্রিকেট বিশ্বায়ন: একটি নাটকের শিরোনাম

তারা ক্রিকেট বিশ্বায়নের কথা বলে বেড়ায় । এতটাই বিশ্বায়ন ঘটেছে যে , বিশ্বকাপে ১৬টি দেশের পরিবর্তে ১৪টি দেশ অংশ নিতে পারে । চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে র্রাংকিংয়ের নবম আর দশম দেশ খেলার সুযোগ পায় না । তাদের বিশ্বায়নের প্রভাবে ২০০৩ বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলা কেনিয়া আর সুপার সিক্স খেলা কানাডা ক্রিকেটবিশ্ব থেকে প্রায় হারিয়েই গিয়েছে । পাকিস্তান , ইংল্যান্ড , ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারানোর পরেও আয়ারল্যান্ড টেস্ট স্ট্যাটাস থেকে বঞ্চিতই থেকে যাচ্ছে । জন ডেভিসন , স্টিভ টিকোলো বা কেনেডি ওবায়ার মতো ক্রিকেটারদের ক্যারিয়ারের করুণ সমাপ্তি ঘটেছে তাদের বিশ্বব্যাপি ক্রিকেট ছড়িয়ে দেওয়ার প্রভাবে ! আইসিসির লভ্যাংশের সিংহভাগ যায় ক্রমান্বয়ে ভারত , অস্ট্রেলিয়া আর ইংল্যান্ডের... viagra vs viagra plus

accutane prices

ষোলআনা ভালোবাসা

চুপিসারে এলে তুমি সূর্যের আলো নিয়ে চাঁদের কলঙ্কের সৌন্দর্য নয় প্রখর তাপে পোড়ালে আমায় , বেসেছি ভালো তোমায় , পুরোটা সত্তা দিয়ে তোমার সুবাসে গভীর আবেশে নিত্যদিন অবিরত , নিদ্রাহীন রাত কতো ! ষোলআনা তোমায় ভালোবেসে নিবিড় আলিঙ্গনে নয় , ভীরু চাহনি দিয়ে দেখেছি তোমার মুখের হাসি , আশা করি না কোনো ; ভরসা ? তাও নয় জানি শুধু তোমায় ভালোবাসি ।

তোমায় চাওয়ার কাব্য

আমি বৃষ্টি ছুঁতে পারি নি ছুঁয়েছি তোমার চোখের জল , আমি চাঁদে যেতে পারি নি করেছি তোমার হাসিতে ভ্রমণ । চড়ি নি আমি মেঘের ভেলায় ভেসেছি তোমার চুলের স্রোতে , নেই নি আমি গোলাপের সুবাস হারিয়েছি তোমার রাঙা ঠোঁটে । অনুভব করেছি আকাশের বিশালতা দেখে তোমার মায়াবী দুচোখ , লাগে নি ভালো রূপকথার পরী কেড়েছে ঘুম তোমার দুধে আলতা রঙ । আগে জীবন ছিলো সাধারণ যখন দেখি নি আমি এই তোমায় , ক্ষণিকের জন্য এসেছিলে দিন কাটছে তাই অস্থিরতায় । এখন শুধু চাই তোমার দুহাত সারাজীবনের জন্যে ধরবো বলে , ভালোবাসায় রাঙিয়ে তোমার জীবন হারাবো দুজনে সুখের ভূবনে ।

যৌবনের পদ্মফুল

রাফি বরাবরই শান্ত এবং লাজুক স্বভাবের ছেলে । সবার সাথে ঠিকভাবে , সৌজন্য রক্ষা করে কথা বলতে পারে না । তার এ স্বভাবের জন্য বন্ধুমহলেও সে এখন একটা হাসির পাত্র । এজন্য সে তাদের সাথেও তেমন মেশে না । পড়ালেখার প্রচুর চাপ সহ্য করতে করতে দশম শ্রেণিতে উঠলো রাফি । ক্লাসে তার রোল নম্বর ৭ , যাকে বলে লাকি সেভেন । তবে সে মোটেও লাকি ছিল না । তার এমন চুপচাপ , অতীব শান্ত স্বভাবের কারণে স্যার – ম্যাডামরাও তার প্রতি আশাহত এবং বিরক্ত । প্রতিদিনই ধমক এবং অপমান সহ্য করতে হয় তাকে । সাথে বাবা-মায়ের একগাদা দুশ্চিন্তা তো আছেই...