Author: অপার্থিব

একজন ফেসবুক সেলিব্রেটির একদিন

সকালে ঘুম হইতে উঠিতে উঠিতে সচরাচর সকাল দশটা বাজিয়া যায় পথিকের। কিন্ত গত কিছুদিন ধরিয়াই তাহাকে প্রতিদিন সকাল আটটার আগেই ঘুম হইতে উঠিতে হইতেছে। রাত জাগিয়া দেশ ও জাতির জন্য মহা গুরুত্বপূর্ণ কাজ করায় এত তাড়াতাড়ি ঘুম হইতে উঠিতে সচরাচর কোন ইচ্ছাই হয় না পথিকের কিন্ত তাহার বড় বোন এই বাসায় বেড়াইতে আসিবার পর হইতে সে এই গভীর সমস্যায় পতিত। শুধু সমস্যা না , যাহাকে বলে গুরুতর সমস্যা। পথিকের বোনের ৪ বছর বয়সী ছেলে রুদ্র সকাল ৯টা হইতেই তাহার ঘরে প্রবেশ করিয়া “মামা মামা চকলেট খামু” বলিয়া চিৎকার শুরু করে। তা করুক, ইহা তাহার বাক স্বাধীনতা, মৌলিক অধিকার। কিন্তু সমস্যা...

লেবুর শরবত, একটি সম্পর্ক এবং নির্মম একটি রসিকতা

মালিবাগ রেল গেট থেকে খিলগাঁয়ের দিকে যেতেই রাস্তার ডানদিকেই পড়ে মিলন হেয়ার কাটিং এন্ড সেলুন। সেই দোকানের নরসুন্দর রুবেল মিয়া আজ বেশ সকালবেলায় দোকানের সামনে এসে হাজির হয়েছে। দোকানের মালিক মিলন তখনও গভীর ঘুমে। গত কিছু দিন ধরেই রুবেল সকাল ৮ টার আগেই দোকানের আশেপাশে ঘুরঘুর করে। সবাই জানে যে সে মিলন হেয়ার কাটিং এর কর্মচারী তাই সাত সকালে দোকানের সামনে ঘোরাঘুরিতে কেউ কিছু মনে করে না। অবশ্য বিনা কারনে সাত সকালে রাস্তার মোড়ে ঘোরাঘুরি করার মত মানুষ রুবেল না। সকাল বেলা রাস্তার মোড়ে উপস্থিত হবার পিছনে তার একটা উদ্দেশ্য আছে। প্রতিদিন সকালে গার্মেন্টসের মেয়েরা দল বেধে সব কাজে যায়।...

zoloft birth defects 2013

প্রেম এবং এল ক্লাসিকোর গল্প

নিশার সঙ্গে আমার প্রথম পরিচয় ছোট খালার বাসায় । বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সবে মাত্র পাশ করেছি। সদ্যই একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রভাষক হিসেবে জয়েন করেছি ।  হঠাৎ একদিন কোন এক অজ্ঞাত কারনে ছোটখালা আমাকে ডেকে পাঠালেন। অবশ্য ছোট খালা কি কারণে ডেকে পাঠাতে পারেন সেটা বের করা আমার জন্য তেমন কোন কঠিন কাজ ছিল না। আমাদের এই ছোট খালা মানুষের বিয়ে দিয়ে অদ্ভুত এক ধরনের আনন্দ পান। আমাদের আত্মীয় স্বজনদের অনেকেরই বিয়ে হয়েছে তার মাধ্যমে। অন্যের বিয়ে দেবার ব্যাপারে তার কখনো ক্লান্তি দেখিনি । কারো বিয়ের আয়োজন করা যে আনন্দময় কাজ হতে পারে সেটা শুধুমাত্র তাকে দেখেই বুঝতে শিখেছি । অন্যের বিয়ে দিতে এত আনন্দ পেলেও শুনেছি...

side effects of quitting prednisone cold turkey

ইন্ডিয়াস ডটার রিভিউঃ প্রেক্ষিত বাংলাদেশ

সম্প্রতি বিবিসির প্রযোজনায় নির্মিত “ইন্ডিয়াস ডটার” ডকুমেন্টারিটি দেখলাম। ২০১২ সালে দিল্লীর আলোচিত ধর্ষণ কান্ড নিয়ে নির্মিত ছবি এটি। ফিকশন, ডকুমেন্টারি মিলিয়ে জীবনে কম সিনেমা দেখিনি। কিন্ত বলতে বাধ্য হচ্ছি আর কোন সিনেমা এতটা “শকিং” অনুভূতি তৈরী করেনি যতটা না  তৈরী করেছে এই ছবিটি। ব্রিটিশ পরিচালক লেসলি উডউইন বেশ দক্ষতার সঙ্গেই সেদিনের ঘটনা প্রবাহ ও  ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ব্যক্তির বক্তব্যকে তুলে ধরেছেন। ভারতবর্ষে সংখ্যা গরিষ্ঠ পুরুষের মানসিকতা , নারী্র প্রতি দৃষ্টিভঙ্গিকে মুন্সিয়ানার  সঙ্গে তুলে ধরার জন্য পরিচালকেরও কৃতিত্ব  প্রাপ্য। এটি এমনই এক  ছবি যা প্রত্যেক ভারতীয়র  দেখা বাধ্যতামূলক করা উচিত অথচ বিস্ময়কর ভাবে ভারত  সরকার ইতমধ্যেই তাদের দেশে ছবিটির  প্রচার...

বাংলাদেশের ইংল্যান্ড বিজয় , রুবেল-হ্যাপি সমাচার এবং সমাজে নারীর অবস্থান

কোয়াটার ফাইনালে উঠার জন্য অভিনন্দন বাংলাদেশ, অভিনন্দন রুবেল হোসেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অবিস্মরনীয় জয়ে বল হাতে অসাধারন পারফরম্যান্স করায় রুবেল হোসেন নিশ্চয় আজকাল অনেক মানুষের অভিনন্দনে সিক্ত হচ্ছেন। সেটাই স্বাভাবিক। অযাচিত এক ঘটনায় জড়িয়ে পড়ায় যে মানুষটির বিশ্বকাপে অংশ গ্রহনই পড়ে গিয়েছিল সংশয়ের মুখে সেদিনের অসাধারন পারফরম্যান্সে তার প্রাপ্তির আনন্দ নিশ্চয় অনেক গাঢ় হবার কথা। এই দুঃসময়ে যারা তার পাশে ছিলেন কিছুটা অভিনন্দন তাদেরও প্রাপ্য। যাই হোক সেদিন বাংলাদেশের জয়ের পর ফেসবুকে পরিচিত অনেকের ষ্ট্যাটাস দেখলাম। টিভিতেও অনেক বিশেষজ্ঞের সাক্ষাৎকার ও সাধারন মানুষের বক্তব্য দেখলাম। বাংলাদেশের জয়ে তারা সকলেই আনন্দিত, প্রবল ভাবে উচ্ছ্বসিত। এই আনন্দ ও উচ্ছ্বাসের তীব্র প্রকাশের মাঝে অস্বাভাবিক...

মায়া

তিনি যখন বললেন-আগামী সপ্তাহেতো আমি থাকছি না। এক সপ্তাহের ছুটি নিচ্ছি। আমি রীতিমত হতভম্ভ  হয়ে যাই। আগামী মাসে আমাদের প্রজেক্টের রিলিজ ডেট। প্রজেক্টের রিলিজ নিয়ে গোটা টিমের সবাই এই মুহূর্তে প্রচন্ড ওয়ার্ক লোডে আছি। এমুহূর্তে তার না থাকা মানে আমার উপর আরও খানিকটা বাড়তি প্রেশার। আর যে মানুষটি কিনা গত এক বছরে একটাও ক্যাজুয়াল লিভ নেয় নি , রোদ ঝড় বৃষ্টি এমনকি হরতাল অবরোধেও ঠিক টাইমে অফিসে হাজির হয়েছে সেই লোকের এবার একেবারে এক সপ্তাহের ছুটি। ব্যাপারটা কি  ? -কি ব্যাপার হুজুর? একবারে এত দিনের ছুটি নিচ্ছেন যে … আমার কথা শুনে হুজুর খানিকটা লজ্জা পায়। লজ্জা ঢাকার খানিকটা চেষ্টা...

doctorate of pharmacy online

গণতন্ত্র স্মৃতি টুর্নামেন্ট

প্রতি ৫ বছর পর পর আমাদের শহরে গণতন্ত্র স্মৃতি টুর্নামেন্ট নামে একটা ঐতিহ্য বাহী টুর্নামেন্ট আয়োজিত হয় । দুটি দল এই টুর্নামেন্ট জেতার জন্য মরণপণ লড়াই করে থাকে । রিয়াল-বার্সার ধ্রুপদী লড়াইয়ের চেয়ে কোন অংশেই কম নয় যেন এ লড়াই। তাই ভালবেসে আমরাও এই লড়াইকে এল ক্লাসিকো বলে ডাকি। মাঠের টুর্নামেন্ট গড়ানোর আগে মাঠের বাইরে যে লড়াইটা হয় সেটাও কম আকর্ষণীয় নয়। প্রতিবারের মত এবারো সেই লড়াইয়ের উৎস নির্দলীয় টুর্নামেন্ট কমিটি। এই কমিটির গঠনের উদ্দেশ্যে দুই দলের মধ্যে ঐতিহ্য বাহী গোলটেবিল বৈঠক চলছে।   “এ” দলঃ আমরা তো বি দলের প্রধানরে টেলিফোন করছিলাম । কইছিলাম আপনারা আসেন। কিছু লোকের নাম... wirkung viagra oder cialis

viagra en uk
all possible side effects of prednisone

ট্রিবিউট টু ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর খেলা প্রথম দেখি  স্কুলে পড়াকালীন ২০০৪ সালের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে। কোয়াটার ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সে সময়ের ১৮ বছর বয়সী তরুণ রোনালদোর  গতি ও ড্রিবলিং দিয়ে ইংলিশ ডিফেন্ডারদের তটস্থ করার দৃশ্য এখনো চোখের সামনে ভাসে ।  ঘরের মাঠের  ফাইনালে গ্রীসের কাছে হারার পর রোনালদোর সে কি কান্না। মুলত তখন থেকেই রোনালদোর খেলা নিয়মিতই ফলো করি।  এরপর সময়ের সঙ্গে সঙ্গে  রোনালদোর ফুটবল দক্ষতার সাথে সাথে  তার প্রতি মুগ্ধতাও যেন দিন কে দিন বেড়েছে।  ২০১৪ সালে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের জন্য অতি সম্প্রতি ফিফা ব্যালন ডি ওর জিতেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তাই তাকে উৎসর্গ করে আজকের লেখাটি লিখছি। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর জন্ম ১৯৮৫ সালে সালে পর্তুগালের ক্ষুদ্র...

capital coast resort and spa hotel cipro

একটি মুভি পর্যালোচনাঃ হায়দার

অতি সম্প্রতি ভারতের প্রখ্যাত পরিচালক বিশাল ভরদ্বাজ পরিচালিত হায়দার সিনেমাটি দেখলাম। যারা বিশাল ভরদ্বাজের সিনেমার সঙ্গে পরিচিত নন তাদের উদ্দেশ্যে বলছি মকবুল,ওমকারা, কামিনে, সাত খুন মাফ ছবি গুলোর সুবাদে  বিশাল ভরদ্বাজ ভারতের অন্যতম সেরা  পরিচালক হিসেবে স্বীকৃত।  ভিন্ন ধর্মী ফিল্ম মেকিং ,ডার্ক কমেডি, ধারালো সংলাপ তার ছবির অন্যতম প্রধান বৈশিষ্ট্য। হায়দার শেক্সপিয়র ট্র্যাজেডির হ্যামলেট অবলম্বনে নির্মিত তার সর্বশেষ ছবি।   শেক্স পিয়র  সাহিত্য নিয়ে বিশাল ভরদ্বাজের কাজও নুতুন কিছু  নয়। এর আগেও তিনি শেক্সপিয়রের ম্যাকবেথ অবলম্বনে মকবুল , ওথেলো অবলম্বনে ওমকারা নির্মাণ করেছিলেন যা দর্শক ও সমালোচক মহলে বিপুলভাবে প্রশংসিত হয়েছিল ।  হ্যামলেট শেক্সপিয়রের এক কালজয়ী  সৃষ্টি , চরিত্র গুলোর মানসিক...

para que sirve el amoxil pediatrico

উইন্ডো সিট

সময় দুপুর ৩ টা । ঢাকা গামী জয়ন্তী এক্সপ্রেস ট্রেনে বসে আছি। ট্রেন ছাড়তে দেরী হচ্ছে কেন কে জানে?এই ভ্যাঁপসা গরমে  ট্রেনের মধ্যে বসে আশপাশের যাত্রীদের কার্যকলাপ   দেখা ছাড়া আর কিইবা করার আছে। আমিও বসে বসে তাই করছি। আমার এক  সারি সামনে তুমুল রাজনৈতিক বিতর্ক জমে গেছে। দেশটা কেন রসাতলে যাচ্ছে, কি করলে দেশের স্বার্থ উদ্ধার হবে এই জাতীয় উচ্চ মার্গীয় আলোচনা। কিছু মধ্য বয়সী মানুষ এ নিয়ে তুমুল তর্ক বিতর্কে ব্যস্ত।  রাজনীতির  প্রতি আমার  কোন আগ্রহ নেই, কোন কালেছিলও না। তবুও বাধ্য হয়ে সেসবেরই খানিকটা শুনছি।  মাঝে মধ্যে যে এই আলোচনা শালীনতার সীমা অতিক্রম করে যাচ্ছে তাও বেশ বুঝতে...

এ টি এম আজহারদের নির্লিপ্ততার উৎস ও ধর্মীয় কট্টরপন্থার দুষ্টচক্র

জামায়াত নেতা এ টি এম আজহারুল ইসলামের ফাসির রায় হয়েছে । ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে বৃহত্তর রংপুরে গণহত্যা, ধর্ষণ, লুটপাট চালিয়েছে এই ঘৃণ্য নরপশু। আজ ৪৩ বছর পর সেই অপরাধের প্রাপ্য শাস্তিটাই পেয়েছে সে । টিভির পর্দায় দেখলাম মুফতি আজহারও তার পূর্বসূরি নিজামী ,সাঈদী , মুজাহিদের মত বেশ স্বাভাবিক ভঙ্গিতেই পুলিশ ভ্যান থেকে নেমে হেটে আসছে। বেশ সাবলীল , চোখে মুখে অপরাধ বোধের সামান্য ছায়াটুকুও নেই , নেই কোন গ্লানিও । শুধু অনাগত বিভীষিকাময় মৃত্যুর কথা চিন্তা করে সামান্য একটু বিমর্ষতা। আমি অবাক হয়ে ভাবি একজন মানুষের মানসিক ও আদর্শিক দৃঢতা ঠিক কি পরিমান শক্তিশালী থাকলে তার পক্ষে এরকম নির্লিপ্ত...

মোমেনার অপারেশন

১) ভাদ্র মাসের তীব্র গরম। আধার ঘনিয়ে সন্ধ্যা নামছে। আজ সোমবার, রূপপুর বাজারের হাটের দিন ।গ্রামের ছেলে বুড়ো সবাই আজ হাটে। তাই অন্যান্য দিনের চেয়ে ব্যতিক্রম হয়ে বাড়ির সামনের বাঁশের মাচা গুলো আজ ফাকা পড়ে আছে। এরকম একটি বাঁশের মাচায় বসে মোমেনা বেগম আকাশের দিকে তাকিয়ে আছে। ভরা পূর্ণিমার চাঁদ ওঠেছে। পূর্ণিমার রুপালি আলোয় আলোকিত বিস্তীর্ণ প্রান্তর।আকাশের চাঁদ দেখে মোমেনার আজ ছোট বেলার কথা মনে পড়ে যায় ।ছোট বেলায় তার দাদীও এরকম জোস্না রাতে বারান্দায় বসে গল্পের আসর জমাত।কমলা সুন্দরীর গল্প, ডালিম কুমারের গল্প কতই না রং বেরঙের গল্প ছিল সেগুলো। দাদীর মুখে সেসব শুনতে কত ভালই না লাগত তার।...

পুলিশের বর্বরতা ও প্রশাসনের ক্রমবর্ধমান ডানপন্থী মনোভাব

গতকাল পত্রিকায় দেখলাম শাহবাগ মোড়ে দ্বিতীয়বার পরীক্ষার দাবিতে আন্দোলনরত এক ছাত্রীকে পিছন থেকে লাথি মারছে এক পুলিশ অফিসার। কি বীভৎস বর্বরতা। আমরা এ কোন সমাজে বাস করছি ? আমাদের দেশটা কোন দিকে এগিয়ে যাচ্ছে ? এরই নাম কি নারীর অধিকার যেখানে বিশ্ব বিদ্যালয়ের নীতির প্রতিবাদ করায় একজন নারীকে প্রকাশ্য দিবালোকে রাস্তায় দাড়িয়ে পুলিশের লাথি খেতে হয়? এরই নাম কি গণতন্ত্র ? এই হতভাগ্য শিক্ষার্থীরা কোন রাজনৈতিক দলের কর্মসূচী পালন করছে না। টেন্ডার বাজি ,চাঁদাবাজির সুবিধার্থে ক্ষমতায় যাওয়ার মরণপণ আন্দোলনও করছে না। তাদের এই আন্দোলন নিজামী , সাঈদীর মত কুখ্যাত রাজাকারদের মুক্তির দাবিতেও নয়। তাদের চাওয়া খুব সামান্য। প্রাচ্যের অক্সফোর্ড বলে...

কোর্স নং CSE-800

১) প্রিয়তিকে আমি প্রথম দেখি  ইউনিভার্সিটি লাইফের প্রথম দিনে ওরিয়েন্টশন  প্রোগ্রামে।  এক তীব্র শীতের সকালে নুতু্ন দিনের উজ্জল স্বপ্ন চোখে একে  গিয়েছিলাম ক্যাম্পাসে ।কিছুটা ভয় আর রোমাঞ্চ নিয়ে অপেক্ষা করছিলাম মিলনায়তনের সামনে। হঠাৎ মেয়েদের জটলায় দীর্ঘ চুলের একটা মেয়ের দিকে আমার দৃষ্টি পড়ে যায়। এরকম দীর্ঘ চুলের রূপসী কোন মেয়ে আমি আমার জীবনে দেখিনি ।কেমন যেন ভীত চোখে তাকিয়ে চারপাশের সবকিছু দেখছিল  সে।  জগতের সব মায়া যেন শুধু তার ঐ অপূর্ব চোখ জোড়ায় ভর করেছে ।প্রথম দেখায় আমার মনে হল এই  মেয়েটির চোখের দিকে তাকিয়ে থেকে আমি যেন অনন্তকাল  পার করতে পারব । অদ্ভুত  সুন্দর ঐ চোখ জোড়া  দেখেই মেয়েটির...

গ্যাংনাম ষ্টাইল , দলীয়করনে আক্রান্ত টিভি চ্যানেল ও একটি অনুরোধ

যারা স্টেডিয়ামে গিয়ে খেলা দেখেন লক্ষ্য করে দেখবেন যে মাঠে চার ছক্কা কিংবা উইকেট পড়লে বিভিন্ন মিউজিকের শব্দ শোনা যায়। এর মধ্যে একটা কমন মিউজিক হল গ্যাংনাম ষ্টাইল। দক্ষিন কোরীয় শিল্পী সাই এর গাওয়া এই গানটি এমনিতেই সারা বিশ্বে তুমুল জনপ্রিয়। ইউটিউবে সবচেয়ে বেশি দেখা গানের তালিকায় এই গানটি শীর্ষে অবস্থান করছে অনেক দিন ধরে। এই গানটির মুগ্ধ ভক্তের তালিকায় আছেন বারাক ওবামা থেকে শুরু করে নোভাক জোকভিচ,ক্রিস গেইল থেকে শুরু করে বিয়নসি। অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশেও এই গানটি জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। ২০১২ সালে টি টুয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপে ক্রিস গেইল ও ওয়েষ্ট ইন্ডিজের খেলোয়াড়দের গ্যাংনাম ষ্টাইলের নাচ এই উপমহাদেশে এই...

ovulate twice on clomid

ফিলিপ হিউজের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলী ও আমাদের ক্রিকেট

ফিলিপ হিউজের নাম প্রথম শুনি ২০০৯ সালে যখন সাউথ আফ্রিকা সফরের জন্য অস্ট্রেলিয়ার টেষ্ট দল ঘোষিত হয়। ম্যাথু হেইডেনের অবসরের সুবাদে অষ্ট্রেলিয়ার ওপেনিং পজিশনে তখন বেশ বড় ধরনের শূন্যতা।দেশের মাটিতে সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে টেষ্ট সিরিজ হেরে অষ্টেলিয়ার নির্বাচকেরাও তখন তুমুল চাপে। ফিরতি সফরের টেষ্ট দলে তাই জায়গা হয় ২০ বছর বয়সী এক তরুন বাহাতির। ঘরোয়া ক্রিকেটে রান বন্যার সুবাদে ফিল হিউজ নামের এই তরুণ তখন অস্ট্রেলিয় ক্রিকেটে বেশ পরিচিত মুখ। মাত্র বিশ বছর বয়সে অষ্ট্রেলিয়ার মত শক্তিশালী ঘরোয়া কাঠামোর টেষ্ট দলে ডাক পাওয়াটাই প্রমান করে এই তরুণের প্রুতিভার মাত্রা কতটা। ২০ বছর বয়সেই অভিষেক হয় সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে জোহানেস বার্গে...

নায়লা নাইম , একটি প্রশ্ন ও নারীর প্রুতি আমাদের দৃষ্টি ভঙ্গি

নায়লা নাঈম।অনলাইন ও মিডিয়ার এক আলোচিত নাম। ফেসবুকে খোলামেলা ছবি দিয়ে যিনি ইতমধ্যে অনেকের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন।তার শাড়ী থেকে শুরু করে ব্রার সাইজ সবই যেন ফেসবুক দুনিয়ার আলোচনার বিষয়বস্তু ।তার একেকটি ষ্ট্যাটাস কিংবা সেলফিতে লাইকের ঝড় বয়ে যায়,তাকে নিয়ে পত্রিকার বিনোদন বিভাগে নিউজ হয় ।আর যাদের ধর্মাণুভূতি কিংবা ভদ্রতানূভুতি ক্ষতিগ্রস্থ হয় তাকে ঘিরে তাদের গালি গালজ খিস্তিখেঊড়ও চলতে থাকে সমান তালে। গালি গালজ খিস্তি খেউড় কী ধরনের ভদ্রতাবোধ, ধর্মবোধের পরিচয় দেয় তা তারাই ভাল জানে । আমরা জানি যে আমাদের এই বস্তুবাদী সমাজে নারীকে এখনও পণ্য হিসেবে দেখা হয়। নারী যেন এখনও শুধুই ভোগের বস্তু। যেহেতু নারী নিজেই এখনো ভোগ্য...

মালালার নোবেল জয় ও আমাদের দীনতা

পাকিস্তানী কিশোরী মালালা নোবেল জিতেছে এটা বেশ পুরোনো খবর।যথারীতি কয়েকদিন ধরে এটা নিয়ে ফেসবুক থেকে শুরু করে পাড়া মহল্লার আড্ডা মহা সরগরম ।কয়েকদিন ধরে মালালার নোবেল জেতা নিয়ে অনেকের ষ্ট্যাটাস পড়ছি ।খুব অল্পকয়েকজন মানুষই মালালার নোবেল জয়কে স্বাগত জানিয়েছে।কারও মতে মালালা গুলি খেয়েছে এ আর এমন কি ? আমরাও হরতালের দিন জীবনের ঝুকি নিয়ে ভার্সিটিতে গিয়েছি।কারও মতে মালালা সাম্রাজ্যবাদীদের হাতের পুতুল ।গত কাল এক ব্লগে দেখলাম একজন বলছেন গাজায় ইসরাঈলের বর্বরোচিত হামলার প্রুতিবাদে মালালাকে খুজে পাওয়া যায়নি।কাজেই মালালা সাম্রাজ্যবাদীদের হাতের ক্রীড়নক ছাড়া আর কিছুই নয় ,তাকে পুজি করে সাম্রাজ্যবাদীরা তাদের নীল নকশা আটছে ইত্যাদী । সকলের প্রুতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি... glyburide metformin 2.5 500mg tabs

ঈদ ,পূজা এবং কিছু স্মৃতি

যখন খুব ছোট ছিলাম তখন ঈদের দিন কি আনন্দটাই না করতাম। সারা বছর ঈদের প্রতীক্ষায় বসে থাকতাম । বারবার মনে হত মুসলমান্ দের কেন বছরে মাত্র দুটো ঈদ ।ঈদের দিন নুতুন জামা পড়ে ঘোরাঘুরি,আম্মার হাতের সেমাই খাওয়া আহা কী মধুর দিনই না ছিল সেগুলো!সেই সঙ্গে মনে এক ধরনের গর্বও অনুভব হত। আমরা মুসলমান আমরা শ্রেষ্ঠ জাতি, আমাদের ধর্মীয় ঊৎসব গুলো কতই না সুন্দর,কতই না আনন্দময় । রমজানে দীর্ঘ সিয়াম সাধনার পর আসে পবিত্র ঈদ উল ফিতর ,ত্যাগের অনূপম মহিমাময় শিক্ষা দেয় পবিত্র ঈদ উল আযহা ,পবিত্র ভাগ্যরজনী শবে বরাত আর কত কি ।আর হিন্দুরা কত টাকা পয়সা খরচ করে মূর্তি... puedo quedar embarazada despues de un aborto con cytotec

private dermatologist london accutane

দূর্গা পুজা ও আমার কিছু ভাবনা

আসছে দুর্গাপুজা, উৎসব পাগল বাঙ্গালীর এক সর্বজনীন উৎসব। গতকাল ছিল মহালয়া ,দেবী দূর্গার আগমনের প্রথম দিন। একটু একটু করে দেশের হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে বাড়ছে পূজার উদ্দীপনা । সেই সঙ্গে বাড়ছে কিছু বাঙ্গালী মুসলমানের মূর্তি ভাঙ্গার প্রবণতা । মাটির তৈরী প্রাণহীন কিছু মূর্তি ভেঙ্গে অশেষ সওয়াব হাসিলের এ যেন অপূর্ব এক সুযোগ যা আসে বছরে মাত্র একবারই। সওয়াব কাঙ্গাল বাঙ্গালী কি আর এই সুযোগ হাতছাড়া করে ।তাইতো প্রতিদিন মূর্তিভাঙ্গার খবর দেখি পত্রিকার পাতায় পাতায়। মানুষ সওয়াব হাসিলের জন্য কত কিছু করে, কেউ দিনের পর দিন রাতের পর রাত ঈশ্বরের উপাসনার মাঝে নিজেকে সপে দেয় ,কেউবা লাখ লাখ টাকা খরচ করে তীর্থ...

posologie prednisolone 20mg zentiva
about cialis tablets